শাজাহান আলি, মেদিনীপুর: খাবারের সন্ধানে লোকালয়ে ঢুকে পড়ে যখন-তখন। জঙ্গলে এবার দুটি দাঁতাল হাতির লড়াই দেখলেন স্থানীয় বাসিন্দারা। তারিয়ে তারিয়ে উপভোগ করলেনও বলা চলে। তবে এই লড়াইয়ের পরিণতি কী হবে, তা নিয়ে আশঙ্কাও কিন্তু বাড়ছে। ঘটনাটি ঘটেছে পশ্চিম মেদিনীপুরের শালবনিতে। 

আরও পড়ুন: 'কথা রাখেননি মুখ্যমন্ত্রী', সরকারের সঙ্গে সংঘাতে যাওয়ার হুঁশিয়ারী 'জঙ্গলমহলের'

মেদিনীপুরের জঙ্গলে হাতির অভাব নেই। তার উপর বাইরে থেকে বিশেষ করে দলমা থেকে হাতির দল এসে ঢুকে পড়ে জঙ্গলে। কিন্তু ঘটনা হল, ইদানিং খাবারে অভাবে লোকালয়েও হাতিদের আনাগোনা বাড়ছে। আর তাতেই প্রমাদ গুনছেন জঙ্গল লাগোয়া গ্রামের বাসিন্দারা। মঙ্গলবার গোয়ালতোড়ে সবজি বোঝাই একটি গাড়ির পথ আটকায় হাতি। তারপর গাড়িটিকে উল্টে দিয়ে সবজির বস্তা সাবাড় করে দিয়ে চলে যায় জঙ্গলে। এবার কি তাহলে এলাকা দখল নিয়ে লড়াই বেঁধে গেল?

পশ্চিম মেদিনীপুরের শালবনির জমিরগোটা গ্রামে একেবারেই জঙ্গল লাগোয়া। মঙ্গলবার বিকেলে স্থানীয় বাসিন্দাদের নজরে পড়ে, জঙ্গলের দিকে যাওয়া রাস্তা লড়াই চলছে দুটি দাঁতাল হাতির! প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, বনদপ্তরের হুলা পার্টি লোকেরা হাতি দুটি আলাদা করে জঙ্গলে ভিতরে ঢোকানোর চেষ্টা করে। কিন্তু তাতেও লাভ হয়নি বিশেষ। জঙ্গলে ঢোকার পরেও যথারীতি লড়াই চলতে থাকে। এরপর বুধবার সকালে যখন স্থানীয় বাসিন্দারা যখন মাঠে কাজ করতে যান, তখন দেখেন, জঙ্গল থেকে বেরিয়ে লড়াই করে চলেছে হাতি দুটি। 

আরও পড়ুন: বাংলাদেশ হয়ে অন্যত্র পাচারের ছক, বিরল প্রজাতির ৫০ লাখ টাকার তক্ষক উদ্ধার জলঙ্গিতে

স্থানীয় বাসিন্দাদের অনুমান, এলাকার দখলের জন্য় হাতিদের মধ্যে এরকম লড়াই চলে। এতে হাতিদের প্রাণহানি আশঙ্কাই শুধু নয়, লোকালয়ে ঢুকে তাণ্ডব চালানোর সম্ভাবনা বেড়ে যায়। ঘটনাটি জানার পরেও বনদপ্তর তেমন কোনও পদক্ষেপ করেনি বলে অভিযোগ। ফলে কিছুটা হলেও আতঙ্ক ছড়িয়েছে এলাকায়।