কিছু কিছু মানুষ আছেন যাঁদের মানুষ মনে রাখে তাদের অভূতপূর্ব কীর্তির জন্য। আর কিছু কিছু মানুষ আছেন যাঁরা স্মরণীয় হয়ে থাকেন আলপটকা উদ্ভট মন্তব্যের জন্য। আর অনাবশ্যক বিবৃতি দিয়ে ঝড় তোলাটা প্রায় শিল্পের পর্যায়ে নিয়ে গিয়েছেন পাক বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রী চৌধুরি ফাওয়াদ হুসেন। এবার মাদ্রাসা ছাত্রদের আত্মঘাতি বোমারু বলে ফের বিতর্কে জড়ালেন তিনি।

টুইট করে তিনি বলেছেন 'মাদ্রাসায় পড়া সব ছাত্রই আত্মঘাতি বোমারু এই কথা সত্যি নয়। কিন্তু দুঃখজনক হলেও এটা সত্যি যে সব আত্মঘাতি বোমারুই মাদ্রাসার ছাত্র '। স্বাভাবিকভাবেই তাঁর এই মন্তব্য পাকিস্তানের মুখ পুড়িয়েছে। নেটিজেনরা সোশ্যাল মিডিয়ায় তাঁকে নিয়ে হাসি-ঠাট্টায় মেতেছেন। কেউ কেউ তাঁর কথাকে একটু ঘুরিয়ে বলছেন, 'সব পাকিস্তানিরা জঙ্গি নয়, কিন্তু সব জঙ্গিই পাকিস্তানি'।

তবে বরাবরই আলপটকা মন্তব্য করে নিজের ও নিজের দেশের নাম ডুবিয়েছেন ফাওয়াদ। এর আগে ভারতের চন্দ্রযান ২-এর সফ্ট ল্যান্ডিং ব্যর্থ হওয়ার পর ভারতের মতো 'গরীব দেশ' ৯০০ কোটি টাকা 'নষ্ট' করল বলেছিলেন তিনি। তাই নিয়েও কম বিদ্রুপ হয়নি।

তারপর আবার শ্রীলঙ্কার ১০ ক্রিকেটার পাকিস্তানে খেলতে যেতে রাজি না হওয়া নিয়েও মন্তব্য করে বিতর্ক তৈরি করেছিলেন তিনি। তাঁর দাবি ছিল ভারত নাকি ওই শ্রীলঙ্কান ক্রিকেটারদের পাকিস্তানে খেললে আইপিএল খেলতে দেওয়া হবে না বলে হুমকি দিয়েছে। তাই তাঁরা পাকিস্তানে খেলতে যাচ্ছেন না। পরে অবশ্য শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ড বিবৃতি দিয়ে জানায় নিরাপত্তার কারণেই ক্রিকেটাররা পাকিস্তানে যেতে রাজি হননি।