ইতিহাস তৈরি করলেন কুস্তিগীর সুনীল কুমার। এশিয়ান কুস্তি চ্যাম্পিয়নশিপে ৮৭ কেজি গ্রিকো-রোমান বিভাগে সোনা জিতলেন সুনীল। ফাইনালে তিনি হারালেন কিরঘিজস্তানের আজাত সালিদিনভকে। ২৭ বছর পর গ্রিকো-রোমান বিভাগে সোনা জিতলেন কোনও ভারতীয়। এই মুহুর্তকে ঐতিহাসিক মুহুর্ত বলে স্বীকার করছেন সমস্ত ক্রীড়া বিশেষজ্ঞরা। এর আগে ১৯৯৩ সালে ভারত শেষবার গ্রিকো-রোমান বিভাগে সোনা জিতেছিল। সেইবার সোনা জিতেছিলেন পাপ্পু যাদব। যদিও যাদব সোনা জিতেছিলেন ৪৮ কেজি বিভাগে। তারপর এতদিন ধরে গ্রেকো-রোমানে সোনা অধরাই ছিল ভারতের। আজ এতদিন পরে সেই খরা কাটল। সেইসঙ্গে এবারের এশিয়ান কুস্তি চ্যাম্পিয়নশিপে প্রথম পদকটি পেয়ে গেল ভারত।

সোনা জিতে নিজেও তৃপ্ত সুনীল কুমার। ২০১৯ এর থেকে এই বছরে তার পারফরম্যান্স ভালো হচ্ছে বলে মেনে নিচ্ছেন তিনি। এতদিন ধরে অধরা সোনা অর্জন কে বিরাট কৃতিত্ব তা বুঝতে পারছেন সুনীল নিজেও। সাংবাদ মাধ্যমকে জানিয়েছেন এইরকম পারফরম্যান্স করে তিনি তৃপ্ত। টেকনিকে কিছু অদল-বদল করেই এই সাফল্য জানিয়েছেন সুনীল।

সেমি-ফাইনালে কাজাকস্তানের আজামত কুস্তুবায়েভের মুখোমুখি হয়েছিলেন তিনি। কাজাকি প্রতিদ্বন্দ্বীর বিরুদ্ধে দুরন্ত লড়াই করে জয় ছিনিয়ে নিয়েছিলেন সুনীল। একসময় ম্যাচে ১-৮ ফলে পিছিয়ে ছিলেন সুনীল। সেখান থেকে অসাধারণ প্রত্যাবর্তন ঘটিয়ে টানা ১১ পয়েন্ট ছিনিয়ে নিয়ে ফাইনালে ওঠা নিশ্চিত  করেছিলেন তিনি। এরপর ফাইনালেও জয় পেলেন তিনি। গত বছরও তিনি ফাইনালে উঠেছিলেন। যদিও সেবার তাঁকে রুপো পেয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হয়েছিল। এবার দেশকে সোনা এনে দিয়ে আগেরবারের আফসোস পুষিয়ে দিলেন তিনি।

একই দিনে ব্রোঞ্জের জন্য নেমেছিলেন আর এক ভারতীয় কুস্তিগীর অর্জুন হালাকুর্কি। ৫৫ কেজি বিভাগে লড়তে নেমেছিলেন তিনি। একসময় ১-৪ ব্যবধানে পিছিয়ে থাকলেও ৭-৪ ফলে ম্যাচ জিতে নেন তিনি।