সোমবার রাতে ভারতে ৫৯ টি চিনা অ্যাপ ব্যান করা হয়েছে। নিষিদ্ধ এই অ্যাপগুলির মধ্যে সর্বাধিক আলোচিত হল টিকটক। এই ৫৯ টি নিষিদ্ধ অ্যাপ্লিকেশনগুলিতে টিকটক অন্তর্ভুক্ত রয়েছে। একই সঙ্গে গুগল প্লে স্টোর এবং অ্যাপল স্টোর থেকেও টিক টক সরিয়ে দেওয়া হয়েছে। এখন ব্যবহারকারীরা এই অ্যাপটি ডাউনলোড করতে পারবেন না।

 

টিকটক নিষিদ্ধ হওয়ার পর থেকেই শুরু হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়া জুড়ে মিম ট্রোল। একই সঙ্গে সবার মনে এই প্রশ্ন উঠছে যে এই টিকটক স্টাররা এই প্ল্যাটফর্মে পা রেখেছেন তাদের কী হবে? দেখে নিন চায়না অ্যাপ ব্যান হওয়ার পর ট্রেন্ডিং-এ থাকা ট্রলগুলি-

টিকটক সংস্থা দাবি করেছে যে টিকটক ১৪ টি ভারতীয় ভাষায় উপলভ্য এবং এতে কয়েক মিলিয়ন ব্যবহারকারী রয়েছেন। যার মধ্যে শিল্পী, গল্প, শিক্ষক যারা তাদের প্রতিদিনের আয় এর জন্য এটি নির্ভর করে। টিকটক আরও দাবি করেছে যে এই ব্যক্তিদের মধ্যে অনেকেই প্রথমবারের মতো ইন্টারনেট ব্যবহার করছেন।

সরকারের নিষেধাজ্ঞার পরে গুগল টিকটক সহ সমস্ত নিষিদ্ধ অ্যাপ্লিকেশনগুলি প্লে স্টোর থেকে সরিয়ে দিয়েছে। নিষিদ্ধ অ্যাপসও অ্যাপল স্টোরটিতে ডাউনলোডের জন্য উপলভ্য নয়।