সম্প্রতি টুইটার নিয়ে চলছে নানান বিতর্ক। অভিযোগ উঠেছে, পাকিস্তান থেকে উস্কানি দেওয়া হচ্ছে কৃষক আন্দলনে। এমনকি টুইটারের মধ্যমে ভুঁয়ো তথ্যও ছড়াচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এই অভিযোগ তুলেই বেশ কিছু টুইটার অ্যাকাউন্ট ব্লক করার নির্দেশ দেয় কেন্দ্রীয় সরকার। তবে টুইটার কর্তৃপক্ষ কেন্দ্র সরকারের এই কথা কানেই তোলেনি, ব্লকও হয়নি টুইটার অ্যাকাউন্ট গুলি। আর তার পরেই নতুন অ্যাপ 'কু' (Koo) -এর প্রচার করতে দেখা যায় কেন্দ্রীয় মন্ত্রীদের। ইতিমধ্যেই বহু মানুষ 'কু' অ্যাপ ব্যবহার শুরু করেছেন। আত্মনির্ভর ভারতের একটি অংশ হিসেবেই ধরা হচ্ছে এই অ্যাপকে।

কি এই 'কু' অ্যাপ?

টুইটারের মতই 'কু' একটি মাইক্রোব্লগিং অ্যাপ। এখানেও টুইটারের মতই সকলে নিজেদের বক্তব্য জানাতে পারবেন। অপ্রমেয়া রাধাকৃষ্ণ এই অ্যাপটির সহ-প্রতিষ্ঠাতা এবং প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা। ২০২০ -র মার্চ মাসে 'কু' চালু হয়েছিল এবং এটি ডিজিটাল ইন্ডিয়ার অন্তর্নির্ভর ভারত উদ্ভাবনী চ্যালেঞ্জ জিতেছে, যা ভারতের সেরা অ্যাপ্লিকেশনগুলির মধ্যে একটি। অ্যাপ্লিকেশনটি তৈরির পিছনের মূল কারণ ছিল   ভারতীয়রা তাঁদের স্থানীয় ভাষায় তাদের মতামত এখানে জানাতে পারবেন।

কি করে ডাউনলোড করবেন 'কু' অ্যাপ?

কুক অ্যান্ড্রয়েড (Android) এবং আইওএস (iOS) উভয়ের জন্য উপলব্ধ একটি ফ্রি অ্যাপ। এছাড়াও গুগল প্লে থেকে পেয়ে যাবেন 'কু'। এছাড়াও অ্যাপ স্টোর থেকে 'কু' অ্যাপ পাওয়া যাবে। এছাড়াও  'কু' -এর একটি ওয়েবসাইটও রয়েছে।

'কু' -এর ফিচার-

'কু' -এর ফিচার অনেকটাই টুইটারের মতই। টুইটার যারা ব্যবহার করেছেন তাদের জন্য এই অ্যাপ ব্যবহারে খুব একটা অসুবিধা হবে না। এই অ্যাপের সাহায্যে আপনি কাউকে ফলো করতে চাইলে করতে পারেন, টুইটারের মতই। এই অ্যাপের মাধ্যমে টেক্সট ম্যাসেজ থেকে শুরু করে ভিডিও এবং অডিও ম্যাসেজও পাঠাতে পারবেন।  ইংরেজি ভাষার সহ এই অ্যাপে রয়েছে কান্নাডা, তামিল, তেলুগু ভাষাও। খুব শীঘ্রই এই অ্যাপে অন্যান্য ভাষাও মিলবে বলে জানা গিয়েছে। 'কু' -এর মাধ্যমে মানুষ তাঁদের স্থানীয় ভাষায় মতামত প্রকাশ করতে পারবেন। তবে ৪০০ শব্দের মধ্যেই ম্যাসেজ পাঠাতে পারবেন এই অ্যাপের মাধ্যমে।