এই মুহূর্তে মানবজীবনে ইন্টারনেটের (Internet) ভূমিকাটা ঠিক কী? এই প্রশ্নের উত্তর কিন্তু মানুষ পেয়ে গিয়েছে। কারণ ২০২০ সাল সকলকে দেখিয়ে দিয়েছে ইন্টারনেট (Internet) মাধ্যম আমাদের জীবনের সঙ্গে কতটা ওতপ্রোতভাবে জড়িয়ে যাচ্ছে। ইন্টারনেট বিপ্লবের (Internet Revolution) সঙ্গে তাল মিলিয়ে জীবনযাত্রা-কে মানানসই করে নেওয়াটাই এখন সবচেয়ে জরুরি বলেই মনে করছেন অধিকাংশ মানুষ। অতিমারির (Coronavirus Pandemic) এই সময়ে ওয়ার্ক ফ্রম ওয়ার্ক হোক, বা ঘরে বসেই অনলাইন ক্লাস অথবা ইন্টারনেটের (Internet) মধ্যে মুখ গুঁজে পড়ে থাকা- মানুষ ভালোমতোই স্বাদ নিয়ে নিয়েছে ইন্টারনেট (Internet) সুবিধার। যার জন্য গত এক বছরের ঘরে ঘরে ওয়াই-ফাই কানেকশন (Wi-FI Connection) নেওয়ার সংখ্যায় প্রায় ১০০ শতাংশ (100%) বৃদ্ধি ঘটেছে। বাড়িতে ওয়াই-ফাই না লাগিয়ে ইন্টারনেট সংযোগ মানুষ ভাবতেই পারছে না। তবে, ইন্টারনেটের স্পিড (Internet Speed)  নিয়ে বেজায় সমস্যায় পড়েছে সকলে। কারণ, বাজারে এতদিন এমন কোনও হাইস্পিড ইন্টারনেট (High Speed Internet) ব্যবস্থা ছিল না যাতে চোখের নিমেষে ডাউনলোড (Download) বা ফাইল আপলোড (Upload) হবে। বিশেষ করে তথ্যপ্রযুক্তির ভাষায় ভারী ফাইল অথবা লম্বা ভিডিও-র আপলোড এবং ডাউনলোডিং-এর ক্ষেত্রে এই সমস্যা বারবার পরিলক্ষিত হয়েছে। মানুষের এই হাইস্পিড ইন্টারনেট ব্যবস্থার চাহিদার কথা মাথায় রেখে এয়ারটেল (Airtel) তাই বাজারে নিয়ে এসেছে এমন এক পরিষেবা যা মাত্র ৩ মিনিটে সম্ভব করে তুলছে ৪জিবি- (4GB) সিনেমার মতো ফাইলের ডাউনলোডিং। 

আরও পড়ুন- সাধ্যের মধ্যে দুর্দান্ত ফিচার, লঞ্চ হতে চলেছে Redmi Note 10 Series-এর দুটি স্মার্টফোন 

এক নতুন ধরনের ইন্টারনেট পরিষেবা


দেশের সর্ববৃহৎ ইন্টারনেট পরিষেবা প্রদানকারী সংস্থা হল এয়ারটেল (Airtel)। যখনই মানুষের হাইস্পিড ইন্টারনেট পরিষেবা দরকার হয়েছে তখনই তারা কোনও না কোনও নতুন প্রযুক্তিকে বাজারে নিয়ে এসেছে। এবারও তারা এমন এক হাইস্পিড ইন্টারনেট-কে (High Speed Internet) সমাজজীবনে মধ্যে প্রবেশ করিয়েছে যেখানে ডাটা স্পিড (data Speed) মিলছে ১জিবিপিএস(1GBPS) যার ফলে, ৪কে(4K) প্রযুক্তির ভিডিও-র ৪জিবি(4GB) ফাইলও ডাউনলোড হয়ে যাচ্ছে মাত্র ৩ মিনিটে। এমনকী, ৯৫জিবি(95GB)-র গেম ফাইল(Games File) এয়ারটেলের এই নতুন ইন্টারনেট পরিষেবায় ডাউনলোড হতে সময় নিচ্ছে মাত্র ২০ মিনিট। এয়ারটেল আসলে বর্তমান দিনে মানুষের ব্যবহারিক জীবনে ইন্টারনেট ডাটার স্পিডের চাহিদা-কে মাথায় রেখেই নিখুতভাবে এই নতুন ব্যবস্থাকে লাগু করেছে। 

আরও পড়ুন- অসাধারণ ফিচার-সহ উন্নতমানের ক্যামেরা, লঞ্চ হল Samsung Galaxy M12 .

এমনকী, ল্যান কেবলের (LAN Cable) মাধ্যমেও হাইস্পিড ইন্টারনেট পরিষেবা প্রদান করছে এয়ারটেল। বহু রাউটার ওয়ারলেস (Router Wireless) ব্যবস্থায় হাইস্পিড ইন্টারনেট পরিষেবাকে কাঙ্খিত জায়গায় নিয়ে যেতে পারে না। তাই ল্যান কেবলের মাধ্যমে ১জিবিপিএস স্পিড-কে নিশ্চিত করেছে এয়ারটেল। এই ল্যান কেবল কানেকশনের জন্য অতিবড় ভারী ফাইল-সহ হাইরেজোলিউশনের ভিডিও (High Resolution Video) থেকে শুরু করে অনলাইন গেমসের (Online Games) অতি ভারী ফাইলও খুব সহজেই ডাউনলোড হয়ে যাচ্ছে। এর জন্য এক ভিন্ন ধরনের হাইস্পিড রাউটারকেও বাজারে নিয়ে এসেছে এয়ারটেল। ইন্টারনেট ওয়াই-ফাই সিস্টেমেই এই হাইস্পিড ইন্টারনেট পরিষেবা দিচ্ছে তারা। এই হাইস্পিড ইন্টারনেট পরিষেবার জন্য ট্রাই ব্র্যান্ড (TRAI BAND), মিমো (MIMO), মু মিমো (MU MIMO) প্রযুক্তি (Technology) ব্যবহার করেছে। এর ফলে অসংখ্য গ্যাজেট-কে (Gadget) একইসঙ্গে কানেক্ট করা সম্ভব হবে। এর ফলে, ওটিটি প্ল্যাটফর্মে চলা সিনেমা (Cinema) দেখতে দেখতেই ভিডিও কল (Video Call) করতে কোনও অসুবিধা হবে না। 

আরও পড়ুন- ফোনের Storage Full নিয়ে সমস্যা, বিনা খরচে বাড়িয়ে নিন সহজ উপায়ে .

কী করে এই রাউটার মিলছে

এয়ারটেল (Airtel) এর জন্য একটু নতুন ডেটা প্ল্যান নিয়ে এসেছে। এতে ১জিবিপিএস (1GBPS) ডাটা প্ল্যানের (Data Plan) সঙ্গে রাউটারকে ফ্রি করে দেওয়া হয়েছে। শুধুমাত্র নতুন গ্রাহকরাই যে এয়ারটেলের এই নয়া প্ল্যান কিনতে পারবেন এমনটা নয়, পুরনো গ্রাহকরাও এর ফায়দা তুলতে পারবেন। যারা এয়ারটেলের পুরনো গ্রাহক তাদেরকে তাদের প্ল্যান আপগ্রেড করে নিতে হবে। এই পুরো কাজটাই কয়েক মিনিটে করা যাচ্ছে এয়ারটেলের থ্যাঙ্কস অ্যাপ-এর মাধ্যমে। তাই আর অপেক্ষা কিসের! হাইস্পিড ইন্টারনেটের (High Speed Internet) মজা নিতে এখনই এয়ারটেলের এই নতুন ব্যবস্থার সঙ্গে নিজেকে জুড়ে নিন।