বিশ্বব্যাপী করোনা মহামারীর মাঝে সবাই নিজেকে সুরক্ষিত রাখতে নানা ধরনের মাস্ক নিয়ে জানতে আগ্রহী। কোন মাস্ক কতটা সুরক্ষিত, কোন মাস্ক কতক্ষণ ব্যবহার করা যাবে, নানান ধরণের প্রশ্ন সার্চ হচ্ছে ইন্টারনেটে। এই সময় এলজি নিয়ে এল পিউরিকেয়ার ও এয়ার পিউরাফায়ার ফেস মাস্ক (LG PuriCare Wearable Air Purifier Face Mask)। এই প্রথম এমন এয়ার পিউরিফায়ার ফেস মাস্ক আসতে চলেছে বাজারে। এলজি-এর এই মাস্ক ডিসপোজেবল মাস্কের কম সরবরাহজনিত সমস্যা মোকাবেলায় সহায়তা করবে বলে মনে করা হচ্ছে।

এলজি পিউরিকেয়ার ওয়্যারেবল এয়ার পিউরিফায়ার আইফএ ২০২০ সেপ্টেম্বরে বাজারে লঞ্চ করবে বলে জানা গিয়েছে। সেই সঙ্গে এই মাস্ক-এর দামও লঞ্চের সময়েই প্রকাশ করা হবে বলে জানিয়েছে সংস্থা। এলজি-র এই এয়ার পিউরফায়ার এই মাস্ক বিভিন্ন মুখের আকার এবং সেই মত ফিটিংস করার জন্য একটি আর্গোনোমিক ডিজাইন রয়েছে। এই মাস্ক বায়ু বিশুদ্ধ করতে দুটি এইচ ১৩ এইচপিএ (H13 HEPA)ফিল্টার ব্যবহার করা হয়েছে। যা দূষিত বাতাসকে বিশুদ্ধ করতে সাহায্য করবে।

এছাড়াও এই ফেস মাস্কে তিন স্পিড লেভেল-এর ডুয়েল ফ্যান ব্যবহার করা হয়েছে। এটি বায়ু গ্রহণ এবং শ্বাসত্যাগের সময় স্বয়ংক্রিয়ভাবে কাজ করবে। এলজি একটি শ্বাস প্রশ্বাসের সংবেদকও দিয়েছে এবং দাবি করেছে যে এটি ব্যবহারকারীর শ্বাসের ক্রিয়া এবং পরিমান ব্যালেল্স করতে পারে। এলজি সংস্থাটি ফেসিয়াল শেপ গবেষণার ভিত্তিতে এই মাস্ক তৈরি করেছে বলে জানা গিয়েছে। এই মাস্ক চার্জেবেল। মাস্কটিতে একটি ৮২০ এমএএইচ ব্যাটারিও রয়েছে যা অন মোডে আট ঘন্টা অবধি এবং হাই মোডে দুই ঘন্টা অবধি কাজ করবে। যখন ফিল্টারটি পরিবর্তন করা প্রয়োজন হবে তখন এটি LG থিনকিউ মোবাইল অ্যাপের মাধ্যমে ব্যবহারকারীকে নোটিফিকেশন দেবে। এগুলি ছাড়াও ফেস মাস্কে এ্যাডজাস্টেবল স্ট্র্যাপ রয়েছে এবং এটি রিইউজেবল।