পশ্চিমবঙ্গের ইন্টারনেট সার্ভিস প্রোভাইডার এবং মাল্টি সার্ভিস অপারেটর মেঘবেলা কেবল এবং ব্রডব্যান্ড সার্ভিসেস বিনোদন জগতে এক আমূল পরিবর্তন ঘটাতে একগুচ্ছ পরিষেবার সূচনা করলো বাংলার  জন্য। মেঘবেলা ব্রডব্যান্ড পরিষেবা নিয়ে এলো এক ভয়েস এনাবল্ড অ্যান্ড্রয়েড বক্স যা গ্রাহকদের সাধারণ টিভি কে স্মার্ট টিভি তে রূপান্তরিত করবে।  গুগল অ্যাসিস্ট্যান্ট দ্বারা চালিত অ্যান্ড্রয়েড বক্সটির মাধ্যমে  অ্যাক্সেস পাওয়া যাবে প্রিমিয়াম ওটিটি প্ল্যাটফর্ম গুলির এবং ১৫০ টিরও বেশি লাইভ টিভি চ্যানেল এর। গ্রাহকরা ২৫০ এমবিপিএস স্পিডের সুপারফাস্ট ব্রডব্যান্ডের সঙ্গে  অ্যামাজন প্রাইম, জি ফাইভ , হাঙ্গামা, হাবহপ্পার, শীমারু মি, গানা এবং হইচই, আড্ডাটাইমস এবং বঙ্গ টিভির মতো বাংলা ওটিটি প্লাটফর্মে বিজ্ঞাপন মুক্ত বিনোদন এবং সংগীত উপভোগ করতে পারবেন। 

আরও পড়ুন- বছর শেষে নয়া উপহার, ভারতের বাজারে লঞ্চ হল Apple AirPods Max

এই অ্যান্ড্রয়েড বক্সটি  এইচডিএমআই পোর্ট বা এভি ইনপুট এর মাধ্যমে যে কোনও টিভিতে সংযুক্ত করা যাবে। সংযুক্ত করার পর টিভি স্ক্রিনটি অ্যান্ড্রয়েড নাইন  ইন্টারফেস প্রদর্শন করবে, যার মাধ্যমে গ্রাহক জনপ্রিয় ওটিটি প্ল্যাটফর্ম এবং লাইভ টিভি চ্যানেলগুলি আক্সেস করতে পারবেন। কলকাতা এবং পশ্চিমবঙ্গের গ্রাহকদের জন্য তিন রকমের প্ল্যান রয়েছে - তিন মাসের জন্য ৫২৫০ টাকা, ছয় মাসের জন্য ৯০০০ টাকা এবং বার্ষিক ১৫,০০০ টাকা। এছাড়াও বিভিন্ন রকমের সুবিধা সহ চারটি মাসিক প্ল্যানও  রয়েছে - ১০০০ টাকা , ১২৪৯ টাকা, ১৪৯৯ টাকা  এবং ১৫৪৯ টাকা। শুধু তাই নয়, মেঘবেলা তার গ্রাহকদের  কোভিড ১৯ থেকে রক্ষা করার জন্য  ওরিয়েন্টাল ইনসিওরেন্সের সঙ্গে ১ লক্ষ টাকার করোনা কবচ স্বাস্থ্য বীমা দিচ্ছে ।

আরও পড়ুন- ৬০০০ mAh ব্যাটারি-সহ দুর্দান্ত ক্যামেরা, ভারতে লঞ্চ হল Moto G9 Power

স্মার্টফোনে ব্যবহারকারী গ্রাহকরা প্লে স্টোর বা আইওএস স্টোর থেকে মেঘবেলা অ্যাপটি ডাউনলোড করেই উপরের সমস্ত সুবিধা এবং পরিষেবাগুলি পেতে পারেন। মেঘবেলা বিনোদনের সম্ভার প্রসারিত করতে ডিজনি+ হটস্টার, সোনি লিভ, ডিসকভারি+ এর মতো অন্যান্য শীর্ষস্থানীয় ওটিটি প্ল্যাটফর্মের সঙ্গেও আলোচনায় রয়েছে। মেঘবেলা ১০,০০০ কিলোমিটার ওভার-হেড ফাইবার নেটওয়ার্ক এবং ২০০০ কিলোমিটার ভূগর্ভস্থ অপটিক-ফাইবার-কেবল পরিষেবার পাশাপাশি ফিক্সড লাইন ভয়েস সার্ভিস চালু করেছে যাতে গ্রাহকরা বিনামূল্যে যে কোনও নেটওয়ার্কে আনলিমিটেড লোকাল এবং এসটিডি ভয়েস কল  করতে পারবেন। এই পরিষেবা প্রাথমিকভাবে কলকাতায় চালু হচ্ছে এবং পর্যায়ক্রমে অন্যান্য জায়গায়  এটি চালু করা হবে।