সামনা সামনি দেখে অবাক হয়েগিয়েলেন মার্কিন পুলিশ অধিকারিক। ভাবতেও পারেননি জীবনে এমন ঘটনার সামনা সামনি হবে। অবাক হয়ে জিজ্ঞাসা করেছিলেন তোমার বয়স কি মাত্র পাঁচ বছর? কেন এমন হল বলুন তো?

মার্কিন পুলিশ অফিসারর মত আপনিও অবাক হচ্ছে তো! খুলেই বলছি। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের উটা হাইওয়েতে টহল দিচ্ছিল মার্কিন পুলিশের একটি  গাড়ি। সেই সময়ই একটি গাড়িকে তীব্র গতিতে যেতে দেখেন তাঁরা। গাড়ি থামানোর চেষ্টা করেন। কিন্তু গাড়িটি এঁকেবেঁকে দ্রুত গতিতে এগিয়ে যায়। অবশেষে গাড়ি থামানর সিগনালও দেওয়া হয়। সেই সময়ই গাড়িতে হাইওয়ের ধারে একটি নিরাপদ স্থানে দাঁড় করায় চালাক। 

আর চালকের কাছে গিয়েই অবাক হয়ে যান মার্কিন পুলিশ অফিসার। কারণ প্রথম গাড়ির পিছন থেকে তিনি দেখতেই পাননি চালককে। প্রথমে ভেবেছিলেন গাড়ির চালক প্রতিবন্দ্বী। কিন্তু সামনে যেতেই ভুল ভেঙে যায়। দেখেন গাড়ির চালকের আসনে বসে রয়েছে এক ক্ষুদে নাগরিক। যার বয়স মাত্র পাঁচ। 

কিছুটা অবাক হয়েই মার্কিন পুলিশ আধিকারিক প্রথমেই চালকের বয়স জিজ্ঞাসা করেন। তখনই চালক জানায় সে ৫ বছরের। কেন গাড়ি চালাচ্ছে তা জানতে চাওয়া হয়ে চালক খোলাখুলিই উত্তর দেয়। জানিয়েছে পারিবারিক অশান্তির জেরেই সে বাড়ি ছেড়ে বেরিয়ে পড়েছে। 
 এখানেই থেকে থাকেনি ৫ বছরের শিশুটি। মার্কিন পুলিশকে জানিয়েছে তার অভিমানের কথায়। বলেছে তার মায়ের সঙ্গে  বিলাসবহুল ল্যাম্বোরগিনি গাড়ি কেনা নিয়ে ঝামেলা হয়েছে। মা গাড়ি কিনে দিতে চায়নি। তাই সে বাড়ি ছেড়ে বেরিয়ে পড়েছে ক্যালিফোর্নিয়ার উদ্দেশ্যে। সেখানে গিয়ে নিজেই একটা ল্যাম্বোরগিনি গাড়ি কিনে নেবে। তারজন্য সে সঙ্গে মার্কিন ডলারও নিয়েছে। তবে ল্যাম্বোরগিনি কেনার জন্য তা নিতান্তই কম। কারণ ক্ষুদে চালকের সঙ্গে রয়েছে মাত্র ৩ মার্কিন ডালর। 

প্রথম টহলদার মার্কিন পুলিশ ক্ষুদে চালককে নিজেদের হেফাজতে নেয়। পরে যোগাযোগ করে পরিবারের সঙ্গে। পরিবারের সদস্যরা জানিয়েছেন ক্ষুদের ভাইবোন ঘুমিয়ে পড়েছিল। সেই সময় সকলের অজান্তেরই গ্যারাজ থেকে এসইউভি গাড়ি নিয়ে বাড়ি ছেড়েছে সে।  

কিন্তু মার্কিন পুলিশ অবাক হয়েছে ক্ষুদের দক্ষতা দেখে। কারণ এসইউভি নিয়ে সে প্রায় তিন থেকে পাঁচ কিলোমিটার গাড়ি চালিয়েছে। আর উটা হাইওয়েতে তীব্রগতিতে ট্রাক, বাস ও পণ্যবাহী গাড়ি চলাচল করে। তাই মার্কিন পুলিশ আধিকারিক ৫ বছরের চালকে দেখে রীতিমত চমকে গিয়েছিল। জানতে চেয়েছিল কবে শিখেছে গাড়ি চালাতে। যদিও তার কোনও উত্তর দেয়নি ক্ষুদে চালক।