১৯০১৮ সাল থেকে নায়গ্রা জলপ্রপাতের কাছে একটা নৌকা আটকে ছিল। হ্যালোউইনের রাতের একটি ঝড়ে নৌকাটি প্রায় ৫০ মিটার দুরত্বে সরে গিয়েছে।  কানাডার ওন্টারিও প্রশাসনের তরফে এক বিবৃতিতে শুক্রবার সোশ্যাল মিডিয়ায় জানানো হয়েছে। নৌকাটিকে নতুন জায়গায় নোঙর করা হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। 

 

নায়াগ্রা পার্কের তরফে এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, ১৯১৮ সালের ৬ অগস্ট একটি দুর্ঘটনার জেরে লোহার এই ছোট নৌকাটি  মূল নৌকো থেকে আলাদা হয়ে এখানে আটকে যায়।  নায়াগ্রা প্রশাসনের তরফে জানানো হয়েছে, স্থানীয় প্রশাসন ও মার্কিন উপকূল রক্ষীদের চেষ্টায় দুই ব্যক্তিকে উদ্ধার করা সম্ভব হয়েছিল। স্রোতের হাত থেকে বাঁচতে ওই সওয়ারিরা নৌকোর নীচে ডাম্পিংয়ের দরজা খুলে দিয়েছিল। তারপর থেকে এত বছর নৌকাটি নায়গ্রা জলপ্রপাতের একধারে কানাডার সীমান্ত ঘেঁষে আটকে ছিল।  

নায়াগ্রা পার্ক কমিশনের প্রবীণ ম্যানেজার জিম হিল জানিয়েছেন, হলোউইন রাতে তুমুল ঝড় ও নায়াগ্রায় স্রোতের গতিবেগ বেড়ে যাওয়ার পর নৌকাটি সেখান থেকে সরে যায়। তিনি মন্তব্য করেছেন, নৌকাটি  আগের জায়গা থেকে ৫০ মিটার সরে গিয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে।  দীর্ঘদিন আটকে থাকার ফলে নৌকাটি অত্যন্ত খারাপ অবস্থায় রয়েছে। গত বছর নৌকাটি আটকে থাকার ১০০ বছর পূর্তি উপলক্ষ্যে নাগ্রা কমিশনের তরফে জানানো হয়, এবার নৌকাটিকে সরিয়ে নেওয়ার সময় হয়েছে।  ভঙ্গুর দশার কারণে নৌকাটিকে ঝড় ও স্রোতের আঘাত সহ্য করতে না পেরে সরে গিয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে। তবে কতদিন নতুন জায়গায় নৌকাটি থাকবে, সেই বিষয়ে কোনও মন্তব্য করা হয়নি নায়গ্রা কমিশনের পক্ষ থেকে।