ঈশ্বরের গল্পে দৌঁড় প্রতিযোগিতায় কচ্ছপের কাছে হেরে গিয়েছিল খরগোস। সেই গল্প আমাদের সকলেরই জানা। কিন্তু কেবল খরগোস নয় আধুনিক যুগে কচ্ছপের কাছে হার মানতে হল পরাক্রমশালী কুমিরকও। সোশ্যাল মিডিয়ায় তেমনি এক ভিডিও এখন মাত করে রেখেছে সকলকে। যা দেখে তাজ্জব বনে গিয়েছেন নেটিজেনরা।

সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে । জানা গিয়েছে, বছর তিনেক আগে এই ভিডিওটি তোলা হয়েছিল মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের দক্ষিণ ক্যারোলিনার হিলটন হেড আইল্যান্ডে। সেই সময়েও ব্যাপক ভাবে ভাইরাল হয়েছিল এই ভিডিও। গত কয়েক দিন হল ট্যুইটারে নতুন করে ভাইরাল হয়েছে এই ভিডিও। 

ভিডিওটি টুইটারে শেয়ার করেছেন ইন্ডিয়ান রেভিনিউ সার্ভিস অফিসার নাভিদ ট্রুম্বু। তিনি লিখেছেন, “যে কোনও পরিস্থিতিতে বেঁচে থাকার জন্য মোটা চামড়ার সঙ্গে শক্ত মনেরও প্রয়োজন। কেউ তোমায় ততক্ষণ হারাতে পারবে না, যতক্ষণ না তুমি তাকে সুযোগ দিচ্ছ।”

 

 

১৮ সেকেন্ডের ওই ভিডিওতে দেখা গিয়েছে, কচ্ছপটিকে কামড়ে ধরে বাগে আনার আপ্রাণ চেষ্টা চালাচ্ছে ওই বিশালাকার কুমির। কিন্তু কোনও ভাবেই সফল হতে পারছে না। উল্টে কচ্ছপের পিঠের শক্ত পুরু আস্তরণ অনেকক্ষণ কামড়ে থাকায় দাঁতের হাল খারাপ হচ্ছে কুমির বাবাজীর। শেষে শিকারকে গিলে নেওয়ার চেষ্টা করে কুমিরটি। কিন্তু তাতেও লাভ হয়নি। আরও খানিকক্ষণ চেষ্টা করে অবশেষে কচ্ছপ গলর্দ্ধকরণের হাল ছেড়ে দেয় বেচারা। ততক্ষণে কুমিরের গ্রাস আলগা হওয়া কোনওমতে পাশের মাঠে গড়িয়ে পড়েছে কচ্ছপটি। তারপর আর কোনওদিকে না তাকিয়ে সোজা  হাঁটা দিয়েছে অন্যদিকে। এদিকে অতক্ষণের পরিশ্রমে ক্লান্ত কুমিরের কচ্ছপটিকে ধাওয়া করার ক্ষমতাও নেই।

ট্যুইটারে পোস্ট হতেই সকলের বেশ মনে ধরেছে ভিডিওটি। প্রায় ২৮ হাজার  নেটিজেন  ইতিমধ্যেই দেখে ফেলেছেন এই ভিডিওটি। ভিডিওটি রিট্যুইট হয়েছে ৫০০ বারেরও বেশি। শেয়ার-কমেন্ট সবতেই রয়েছে চমক। মন্তব্য উপচে পড়ছে কমেন্ট বক্সে।  কেউ কেউ যেমন কুমীরের এই দুর্দশার জন্য দুঃখ প্রকাশ করেছেন, আবার কেউ কেউ মজা করে লিখেছেন   কুমীরের দাঁতের মাজনের দোষের কথা। 

নেটিজেনদের অনেকেই বলছেন, “গল্পে যেমন খরগোশকে বুদ্ধির জোরে হারিয়ে দিয়েছিল কচ্ছপ, তেমনই এবার বাস্তবে নিজের দৈহিক গঠনের কারণে কুমিরকে হারিয়ে দিয়েছে এই কচ্ছপ।”