করোনা থেকে বর্ণ বিদ্বেষের উত্তপ্ত আবহের মধ্যেই ঢাঁকে কাঠি পড়ে গিয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের। ডেমোক্র্যাট প্রার্থী হিসেবে ছাড়পত্র পাওয়ার পর জো বিডন সরাসরি চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিলেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে। তিনি বলেছেন আর্থনৈতিক উন্নয়নের জন্য এখনও অনেক বেশি কাজ করতে হবে। পাশাপাশি ট্রাম্পের আমলে উন্নয়নমূলক কাজ তেমন হয়নি বলেও তীব্র সমালোচনা করেন তিনি। 

জো বিডন বলেছেন কঠিন সময়ের মধ্যে দিয়ে চলেছে দেশ। ডোনাল্ড ট্রাম্পের ক্ষুদ্র ও বিভাজনমূলক নীতির ফল ভুগতে হচ্ছে গোটা দেশকে। একটি গঠনমূলক নেতৃত্বের অপেক্ষায় রয়এছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। এই পরিস্থিতিতে দাঁড়িয়ে আমাদের এক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে। যা দেশকে আরও শক্তিশালী বানাবে। 

মার্কিন মুকুলে 'হিরো' রাহুল দুবে, ৭০ প্রতিবাদীকে চোখ ধুতে দিয়েছিলেন দুধ ...

ঘরে বাইরে কোনঠানা ট্রাম্প, প্রতিবাদে সামিল টুডো, হোয়াইট হাউসের রাস্তার নাম বাদলালেন মেয়র ...
বারাক ওবামার শাসনকালে জো ছিল ভাইস প্রেসিডেন্ট। ৭৭ বছরের জো জয়ের বিষয়ে অনেকটাই আশাবাদী। রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের মতে সেই কারণে ভেঙে পড়া মার্কিন অর্থনীতির পুনরুদ্ধারের দিকেই জোর দিয়েছেন জো। জো ট্রাম্পের সমালোচনা করে বলেছেন করোনার কারণে দেশের বহু মানুষেই কাজ হারিয়েছেন। আমেরিকানদের এই কঠোর সময়ের দিকে ঠেলে দেওয়ার জন্য মার্কিন প্রেসিডেন্টকেই দায়ি করেছেন তিনি। পাল্টা ডোনাল্ড ট্রাম্প দাবি করেছেন, আগামী বছেরের মধ্যে সমস্ত পরিস্থিতি ঠিক হয়ে যাবে। কাজ হারানো মানুষরা আবারও ফিরে পাবেন কাজ। 

কেরলের গর্ভবতী হাতি হত্যায় নতুন মোড়, আনারস নয় বিপদ এসেছিল নারকেল থেকে ..

সেনেটর থাকার সময় থেকেই ভারত মার্কিন সম্পর্কের উন্নয়নে জোর দিয়েছিলেন জো। ভারত মার্কিন পারমানবিক চুক্তিতেও তাঁর সায় ছিল। ২০১৩ সালে ভারত সফরের সময় বিডন বলেছিলেন, আঞ্চলিক ও বাণিজ্যিক সম্পর্কে আরও জোর দেওয়া প্রয়োজন। ভারতের সঙ্গে রাজনৈতিক সম্পর্ক মস্মৃণ ও উন্নত বাণিজ্যিক সম্পর্ক বজায় রাখার  ওপরেও জোর দিয়েছিলেন বরাবার। 

আগামী ৩ নভেম্বর মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচন।চলতি বছর শুরুতেই ডেমোক্র্যাট প্রার্থী হিসেবে প্রায় ১২ জন ছিল লড়াইয়ের ময়দানে। প্রথম হার্ডেল রেসটি পার করতে পেরেছেন বলে দলীয় কর্মীদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন জো। তাঁর মূল প্রতিদ্বন্দ্বী ডোনাল্ড ট্রাম্প। তাঁকে হারাতে পারলেই হোওয়াইট হাউসে ঢোকার ছাড়পত্র পাবেন জো বিডন। এই জন্য আগামী তেশরা নভেম্বর পর্যন্ত তাঁকে কঠোর পরিশ্রম করতে হবে বলেও জানিয়েছেন তিনি।