বর্তমান সময়ে কম্পিউটার কমবেশি সকলেই ব্যবহার করেন। হাতের মুঠোফোনগুলিও এখন একেকটি শক্তিশালী কম্পিউটার। কম্পিউটার হোক কি মোবাইল ফোন, 'কাট', 'কপি', 'পেস্ট' প্রোগ্রাম সকলেই ব্যাবহার করে থাকেন। কোনওদিন ভেবে দেখেছেন এই প্রোগ্রামগুলি না থাকলে কতটা অসুবিধা হতে পারত? এই কম্পিউটার ফাংশনগুলি বেরিয়েছিল ল্যারি তেসলার নামে এক কম্পিউটচার বিজ্ঞানীর মাথা থেকে। বৃহস্পতিবার ভোরে ৭৪ বছর বয়সে তাঁর দেহাবসান ঘটল।

১৯৪৫ সালে নিউইয়র্কের ব্রঙ্কস এললাকায় তাঁর জন্ম হয়েছিল। ক্যালিফোর্নিয়ার স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করেন ল্যারি। স্নাতক ডিগ্রি অর্জন করার পর শেষ করার পরে, তিনি কম্পিউটার ইউজার ইন্টারফেস ডিজাইন নিয়ে পডড়াশোনা করেন। গত শতাব্দীর ছয়ের দশকের গোড়ায় যখন বেশিরভাগের কাছেই কম্পিউটার আজব যন্ত্র ছিল, সেই সময় সিলিকন ভ্যালিতে চাকরি শুরু করেছিলেন তিনি।

আরও পড়ুন - 'বিস্ট'-কে নিয়েই আসছেন ট্রাম্প, বিশ্বের সবচেয়ে সুরক্ষিত এই গাড়ির ভিতর কী কী আছে

দীর্ঘ ক্যারিয়ারে তিনি বেশ কয়েকটি বড় টেক ফার্মের হয়ে কাজ করেছিলেন। জেরক্স সংস্থার পালো অল্টো রিসার্চ সেন্টার (পার্ক)-এ তিনি একটানা ১৭ বছর কাজ করেছিলেন। সেখানে প্রধান বিজ্ঞানীর পদেও ছিলেন তিনি। তারপর স্টিভ জোবস তাকে অ্যাপল সংস্থায় ডেকে নিয়েছিলেন। অ্যাপল সংস্থা ছাড়ার পর তিনি একটি শিক্ষামূলক কাজে যুক্ত হন। অ্যামাজন এবং ইয়াহু সংস্থাতেও অল্প সময়ের জন্য কাজ করেছিলেন।

আরও পড়ুন - মুম্বইয়ের বস্তির জয়জয়কার মার্কিন মুলুকে, আমেরিকা'স গট ট্যালেন্টের সেরা 'ভি আনবিটেবল'

তবে তার সবচেয়ে বড় পরিচয় ওই কাট  কপি পেস্ট কমান্ড-এর আবিষ্কার। যার কারণে কম্পিউটার অত্যন্ত সহজ-ব্যবহারযোগ্য হয়ে উঠেছে। মানুষ কম্পিউটার যুগের আগে যেমন কাগজ কেটে নিয়ে আঠা দিয়ে লাগাতো, তিনি সেই প্রক্রিয়াটিকেই কম্পিউটার প্রোগ্রামে তুলে আনেন। যার ফলে সাধারণ মানুষের জন্য কম্পিউটার চালানো অনেক সহজ হয়েছে।

আরও পড়ুন - সাধ্যের মধ্যে দুর্দান্ত ফিচার, আসতে চলেছে লিনোভো-এর ব্লুটুথ ইয়ারবাডস

তাঁর মৃত্যুর পর শোকপ্রকাশ করেছে জেরক্স সংস্থা। দীর্ঘদিন এই সংস্থায় গবেষণা করেছেন ল্যারি। তারপর সেখান থেকে তাঁকে একরকম ছিনিয়েই এনেছিলেন অ্যাপেল সংস্থার প্রতিষ্ঠাতা স্টিভ জোবস, এমনটাই শোনা যায়। অ্যাপলের ১৯৮৩ সালের একটি কম্পিউটারেই প্রথম কাট-কপি-পেস্ট কমান্ড ব্যবহার হয়েছিল।