ডোনাল্ড ট্রাম্প কী আরও চার বছর হোয়াইট হাউসে থেকে যাতে পারবেন? নাকি তাঁর জায়গা দখল করে নেবেন জো বিডন? মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্সিয়াল নির্বাচনের কাউন্টডাউন শুরু হয়ে গেছে। ফলাফল জানতে আরও একটু সময়ের অপেক্ষা। কিন্তু তার আগেই সংবাদ মাধ্যম বিবিসির সমীক্ষায় উঠে এসেছেন মার্কিন নির্বাচনের সম্ভাব্য ফলাফল। আগামী ৩ নভেম্বর মার্কিন রাষ্ট্রপতি নির্বাচন। 

তাতে দেখা যাচ্ছে মার্কিন প্রেসিডেন্ট তথা রিপাবলিকান প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্প কিছুটা হলেও পিছিয়ে রয়েছেন ডেমোক্র্যাক্ট প্রার্থী জো বিডনের তুলনা। সমীক্ষায় দেখা গেছে জো বিডন ৫২ শতাংশ ভোট পেয়ে এগিয়ে রয়েছেন। আর ট্রাম্প প্রায় দশ শতাংশ কম ভোট পেয়েছেন। সমীক্ষার রিপোর্টে আরও স্পষ্ট হয়েছে অ্যারিজোন, ফ্লোরিডা, গর্জিয়া সহ বেশ কয়েকটি রাজ্যে গত নির্বাচনেও ট্রাম্প এগিয়ে ছিলেন। সেই রাজ্যগুলিতে জো বিডন পিছনে ফেলে দিয়েছে মার্কিন প্রেসিডেন্টকে। এখনও পর্যন্ত পাওয়া সমীক্ষা রিপোর্ট শুধুমাত্র টেক্সাসেই ট্রাম্প এগিয়ে রয়েছেন বিডনের থেকে। সেখানে ট্রাম্পের পক্ষে সমর্থন জানিয়েছেন ৪৮.৪ শতাংশ মানুষ। আর বিডনের পক্ষে রয়েছেন ৪৫.২ শতাংশ সমর্থন। 

গত ২৯ সেপ্টেম্বর একটি টিভি বিতর্কে অংশ নিয়েছিলেন ট্রাম্প আর বিডন। বিবিসির এক রিপোর্টারের মত সেটি ছিল খুবই নিম্নমানের। কিন্তু তারপরেও দেখা গেছে অধিকাংশ মানুষই ডেমোক্র্যাক্টদের এগিয়ে রেখেছে। বিতর্ক চলাকালীন বিডন ৫৩ শতাংশ মানুষের সমর্থন পেয়েছেন। আর সেখানে দেখা গেছে তাঁর প্রতিপক্ষ পেয়েছেন ৩৯ শতাংশ সমর্থন। দুসপ্তাহ আগে তাদের মধ্যে পার্থক্য ছিল প্রায় ৬ শতাংশের। এই বিতর্ক ট্রাম্পকে খুব একটা এগিয়ে নিয়ে যেতে সাহায্য করেনি বলেও দাবি করা হয়েছে। 

করোনাভাইরাসও প্রভাব ফেলেছে ট্রাম্পের জনপ্রিয়তায়। কারণ সমীক্ষা রিপোর্টে দেখা গেছে এমনিতেই কোভিড নিয়ে একাধিক প্রশ্নের মুখে পড়েছে ট্রাম্প প্রশাসন। এবিসি নিউজের সমীক্ষা অনুযায়ী মাত্র ৩৫ শতাংশ আমেরিকানই মনে করেন পরিস্থিতি সামাল দিতে সফল হয়েছে ট্রাম্প প্রশাসন। আর রিপাবলিকানদের পক্ষে পড়েছে ৭৬ শতাংশ সমর্থন। ট্রাম্প করোনা আক্রান্ত হওয়ার পর ৭২ শতাংশই মনে করেছেন  সংক্রমণের ঝুঁকির বিষয়ে খুব একটা গুরুত্ব দেননি ট্রাম্প।