বিশ্বের করোনা আক্রান্ত দেশগুলির তালিকায় এখনও এক নম্বরে রয়েছে আমেরিকা। গত ২৪ ঘণ্টাতেও দেশটিতে মৃত্যু হয়েছে ১,৬৮০ জনের। ফলে মৃতের সংখ্যা ৮৮ হাজার ছাড়িয়ে চলে গিয়েছে। আমেরিকায় মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ১৫ লক্ষ ছুঁতে চলেছে। পৃথিবীর সবশক্তিধর দেশের পরিস্থিতি ক্রমেই জটিল হচ্ছে। তবে এমন দুঃসময়েও ভারতের দিকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিতে ভুললেন না মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। করোনা মোকাবিলায় ভারতকে ভেন্টিলেটর দান করবে আমেরিকা, নিজেই সেকথা ঘোষণা করলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট।

ট্যুইটারে মার্কিন প্রেসিডেন্ট লেখেন, “আমি গর্বের সঙ্গে ঘোষণা করছি যে আমরা ভারতকে ভেন্টিলেটর দেব। এই মহামারীর বিরুদ্ধে লড়াইয়ে আমরা ভারত ও প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর পাশে রয়েছি। করোনার ভ্যাকসিন তৈরি করতেও আমরা একে অন্যকে সাহায্য করব। একসঙ্গে আমরা করোনাকে হারাব।”

 

 

এরপর হোয়াইট হাউসের রোজ গার্ডেনে এক সাংবাদিক সম্মেলনে ট্রাম্প বলেন,”আমি কিছুদিন আগেই ভারত থেকে এলাম। আমরা একে অপরকে সাহায্য করে এগিয়ে চলেছি। আমেরিকাতেও বহু ভারতীয় থাকেন। তাঁদের অনেকই প্রতিষেধক তৈরির কাজ করছেন। সবাই বড় মাপের গবেষক ও বিজ্ঞানী।” মার্কিন প্রেসিডেন্ট বলেন, “আমরা ভারতের সঙ্গে যৌথভাবে কাজ করছি। কারণ, ভারত আমাদের সঙ্গে খুব ভাল ব্যবহার করছে। আপনারা সকলেই জানেন প্রধানমন্ত্রী মোদি আমার খুব ভাল বন্ধু।”

 

 

বিশ্বজুড়ে  করোনা সংক্রমণের মাঝেই ভারত ও আমেরিকা দুই দেশ দু’জনের পাশে থাকার বার্তা দিয়েছে। ভারত থেকে যেমন হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন আমেরিকায় পাঠানো হয়েছে, তেমনই আমেরিকা আর্থিক সাহায্য করেছে ভারতকে। একবার নয় দুবার ভারতের জন্য আর্থিক সাহায্যের ঘোষণা করেছেন ট্রাম্প। যদিও মাঝে সেই সম্পর্কে সামান্য হলেও চিড় ধরেছিল। হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন রফতানির উপর ভারত নিষেধাজ্ঞা জারি করায় মোদীকে রীতিমত দেখে নেওয়ার হুমকি দিয়েছিলেন ট্রাম্প। তবে ভারত ওষুধ পাঠাতে রাজি হওয়ায় পরমুহুর্তে মোদীকে প্রশংসাতেও ভরিয়ে দিয়েছিলেন তিনি। এবার বন্ধুর দেশকে ভেন্টিলেটর দিয়ে সাহায্য করার বার্তা দিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট।