করোনার কারণে এখন কার্যত জনমানবশূন্য আমেরিকার বড় বড় শগরগুলি। নিউ ইয়র্ক, লস অ্যাঞ্জেলেসের মত শহরে অধিকাংশ দোকান-সিনেমা হল-পানশালাই বন্ধ হয়ে গিয়েছে। একই পথে হেঁটেছে ক্যালিফোর্নিয়া ও সান ফ্রান্সিসকোও। রেস্তোরাঁয় মিলছে না বসে খাওয়ার অনুমতি। করোনা আতঙ্কে বন্ধ দেশের সমস্ত স্কুল-কলেজ। করোনায় সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত হচ্ছেন বয়স্করা। সেই কারণে বয়স্কদের বাড়ি থেকে না বেড়তো নিষেধ করছে মার্কিন প্রশাসন। আর এই করোনা আতঙ্কের মাঝেই দাদু-নাতনির এক মিষ্টি সম্পর্কের ছবি মন ছুঁয়ে গেল নেটিজেনদের।

আরও পড়ুন: ভারতে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ১৫১, বারাণসী ও হরিদ্বারে বন্ধ হল বিখ্যাত গঙ্গা আরতি

সম্প্রতি বাগদান সেরেজেন কার্লি বয়েড নামের এক তরুণী। কিন্তু আদরের নাতনির সেই বিশেষ দিনটিতে উপস্থিত থাকতে পারেননি দাদু। বয়স্কদের লাকডাউন করে রাখছে মার্কিন প্রশসান। উত্তর ক্যারোলিনার এক নার্সিংহোমেই তাই এখন একাকী দিন কাটছে বৃদ্ধের। কিন্তু নিজের বাগদানের কথা দাদুকে জানাতে চান নাতনি। তাই নার্সিংহোমের জানলা এপার থেকেই দাদুর কাছে তুলে ধরলেন তাঁর আংটি পরা হাত।

আরও পড়ুন: কোন ব্লাড গ্রুপে করোনা সংক্রমণের সম্ভাবনা সবচেয়ে বেশি, গবেষণায় উঠে এল চাঞ্চল্যকর তথ্য

হাসপাতালের এক কর্মীর সাহায্য নিয়ে দাদুর রুমের বাইরের জানলা পর্যন্ত আসতে পেরেছিলেন তরুণী। সেখান থেকেই বাগদানের আংটি বৃদ্ধকে দেখালেন কার্লি। সেই হৃদয় ছুঁয়ে যাওয়া সেই ছবি সম্প্রতি শেয়ার করেছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। 

 

কার্লি নিজেও একজন নার্সিং স্টুডেন্ট। তাঁর কথায়, "বাড়ির সকলকে ও বন্ধুদের বাগদানের কথা জানালেও দাদু না জানানো পর্যন্ত শান্তি হচ্ছিল না। ফোনেও দাদুর সঙ্গে কথা বলা যাচ্ছিল না। তাই দাদুকে  সুখবরটা দিতেই এই পন্থা নিতে হয়েছিল।"

হাসপাতালের জানলার এপার আর ওপার থেকেই দাদু-নাতনির হৃদয় বিদারক ছবি নিমেষে ভাইরাল হয়েছে নেট দুনিয়ায়। ইতিমধ্যে সোশ্যাল মিডিয়া সাইট ফেসবুকে এই ছবিটিতে কমেন্ট পড়েছে ১০ হাজারের বেশি। শেয়ার হয়েছে ১৭০ হাজার বারের বেশি। 

আগামী বছর বিয়ে করতে চলেছেন  কার্লি বয়েড। তরুণীর আশা বাগদানে থাকতে না পারলেও বিয়ের দিন ঠিক উপস্থিত হবেন তাঁর দাদু।