বন্ধু মোদী কি ভারতে যথেষ্ট পরিমাণে টেস্ট করছেন না? গুরুতর প্রশ্ন তুলে দিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। ভারতে যেভাবে করোনা রোগীর সংখ্যা বেড়ে চলেছে, তাতে বিরোধী দলগুলির অনেক নেতাই ভারতে করোনা টেস্টের সংখ্যা পর্যাপ্ত পরিমাণে হচ্ছে না বলে অভিযোগ করছেন। এবার অনেকটা সেই সুরই শোনা গেল ট্রাম্পের গলাতেও। শুক্রবার আমেরিকার এক মেডিকেল প্রোডাক্ট প্ল্যান্টে গিয়ে এক জনসভায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে ট্রাম্প বলেন, ভারত ও চিনের মতো দেশে যদি আরও পরীক্ষা করা হয়, তহলে দেখা যাবে আমেরিকার থেকেও করোনভাইরাস রোগীর সংখ্যা বেশি। চিন নাহয় তাদের ঘোষিত শত্রু, কিন্তু ভারত তথা নরেন্দ্র মোদী তো তাঁর বন্ধু বলেই বারবার নিশ্চিত করেন। কাজেই তাঁর কথার সূত্র ধরে স্বাভাবিকভাবেই বিতর্ক তৈরি হয়েছে।

শুক্রবার মেই প্রদেশের ওই চিকিৎসা সামগ্রী তৈরির কারখানায় গিয়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ক্রমে করোনা রোগীর সংখ্যাবৃদ্ধির কারণ হিসাবে দাবি করেন, তাঁর প্রসাসন আসলে রেকর্ড সংখ্যক পরীক্ষা করছে, তার জন্যই এই সংখ্যাটা বেশি দেখা যাচ্ছে। মার্কিন প্রেসিডেন্ট বলেন, 'আমরা আমাদের পরীক্ষা করার ক্ষমতা ব্যাপকভাবে বাড়িয়েছি। আমরা এখন ২০ মিলিয়ন পরীক্ষা করতে পারি। সেখানে জার্মানি করে ৪ মিলিয়ন, দক্ষিণ কোরিয়া প্রায় ৩ মিলিয়ন। খুব শীঘ্রই আমরা ২০ মিলিয়নেরও বেশি পরীক্ষার সক্ষমতায় পৌঁছব'।

এখানেই থামেননি তিনি, বলেন মনে রাখতে হবে, পরীক্ষার সংখ্যা যখন বেশি হয়, করোনা মামলার সংখ্যাও বেশি হয়। মার্কিন প্রেসিডেন্ট এরপরই বলেন, 'হলফ করে বলতে পারি, যদি আমরা চিন বা ভারতে বা অন্য কোনও জায়গায় আরও বেশি পরীক্ষা করি, তবে আমেরিকার থেকেও বেশি মামলা পাওয়া যাবে'।

তবে, এখনও অবধি ভারত ও চিন দুই দেশেরই করোনা রোগীর সংখ্যা এবং এই রোগে মৃতের সংখ্যা, দুটোই আমেরিকার থেকে অনেক কম। শনিবার পর্যন্ত ওয়ার্ল্ডোমিটার-এর তথ্য অনুযায়ী আমেরিকার করোনা রোগী ও মৃতের সংখ্যা হল যথাক্রমে ১৯,৬৬,২৬৬ এবং ১,১১,৩৯৮। আমেরিকার মতো ভারতেও এখনও বেড়েই চলেছে করোনা রোগীর সংখ্যা। শনিবার বিকেল পর্যন্ত ভারতের মোট করোনা রোগীর সংখ্যা ২,৩৭,৭৫৪ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ৬৬৫০ জনের। অন্যদিকে চিনে এই মহামারির শুরু হলেও, চিনের পরিসংখ্যান দুই দেসের থেকেই অনেক ভালো। আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা যথাক্রমে, ৮৩,০৩০ এবং ৪,৬৩৪।