শনিবার মহিষাদলে শুভেন্দুর সভা।  সূত্রের খবর,  প্রায় ১৫০ জন তৃণমূল নেতা বিজেপিতে যোগ দিতে চলেছেন। মূলত শুভেন্দু অধিকারীর হাত ধরেই বিজেপিতে আসবেন এরা সকলেই। উল্লেখ্য, নতুন বছরের প্রথম দিনেই ইতিমধ্যেই শুভেন্দু হাত ধরে বিজেপিতে নাম লিখিয়েছেন ভাই সৌম্য়েন্দুও।


 
শনিবার দুপুর ২ টো নাগাদ শুরু হবে মহিষাদলে বিজেপির জনসভা। উপস্থিত থাকবেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়। সূত্রের খবর, জেলা পরিষদ সদস্য, গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান, ব্লক সভাপতি সহ শনিবার প্রায় ১৫০ জন তৃণমূল নেতা বিজেপিতে যোগ দিতে চলেছেন। মূলত শুভেন্দু অধিকারীর হাত ধরেই বিজেপিতে আসবেন এরা সকলেই। ধীরেধীরে যে তরী ডুবছে তৃণমূলের, চাপান উতোর রাজনৈতিক মহলে।


উল্লেখ্য, শুক্রবার বছরের প্রথম দিনেই বিজেপিতে যোগ দিলেন শুভেন্দুর ভাই সৌম্যেন্দু অধিকারী। তবে শুধু সৌম্য়েন্দুই নয়, সঙ্গে কাঁথি পুরসভার ১৫ জন বিদায়ী কাউন্সিলার এবং নন্দীগ্রামের প্রাক্তন বিধায়ক ফিরোজা বিবিও বিজেপিতে যোগ দান করেন।উল্লেখ্য, কিছু দিন আগেই কাঁথির পুর প্রশাসকের পদ থেকে সরিয়ে দিয়েছিল রাজ্য সরকার। প্রকাশ্য়েই এই সিদ্ধান্তের প্রতিবাদ করেছিলেন শুভেন্দু অধিকারীর অপর ভাই, তমলুকের সাংসদ দিব্যেন্দু অধিকারী। মঙ্গলবার খড়দহের সভা থেকে অভিষেকের কটাক্ষের পাল্টা জবাবে বলেন,' তোমার বাড়িতে ঢুকেও পদ্ম ফোঁটাব।' এর পরপরেই প্রশাসকের পদ থেকে সরানো হয় সৌম্যেন্দুকে। তবে এরপর আর দেরী করেননি সৌম্যেন্দু। দাদা শুভেন্দুর হাত ধরেই বিজেপিতে নাম লিখিয়েছেন তিনি।