সোমবার, উত্তরকন্যা অভিযানের সময় পুলিশের লাঠির ঘায়ে  উলেন রায় নামে তাদের এক কর্মীর মৃত্যু হয়েছে বলে দাবি করল বিজেপি। বিজেপি-র কেন্দ্রীয় নেতা কৈলাস বিজয়বর্গীয় এবং রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ দুজনেই দাবি করেছেন ব়্যাফ-এর ছোড়া রাবারের বুলেটে ও পুলিশের লাঠির আঘাতেই ওই কর্মীর মৃত্যু হয়েছে। তবে এখনও পুলিশ বা প্রশাসনের পক্ষ থেকে এই বিষয়ে সরকারিভাবে কিছু জানানো হয়নি।

জানা গিয়েছে, মৃত উলেন রায় (৫০ বছর)-এর বাড়ি গজলডোবালার বিনয়পল্লি-তে। এদিন শিলিগুড়িতে দুটি দিক থেকে মিছিল করে উত্তরকন্যা অভিযানে এসেছিলেন বিজেপি নেতা-কর্মীরা। এরমধ্যে ফুলবাড়ির দিক থেকে দিলীপ ঘোষের নেতৃত্বে আসা মিছিলেই ছিলেন ওই কর্মী। ফুলবাড়ি মোড়ে বিজেপি-র মিছিল  আটকাতে পুলিশ ব্যারিকেড গড়েছিল। বিজেপি কর্মীরা ব্যারিকেড ভাঙার চেষ্টা করতেই পুলিশ তাদের বাধা দিয়েছিল। বিজেপি কর্মীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে ইট ছুঁড়তে থাকে। পুলিশ তাদের ছত্রভঙ্গ করতে জলকামান ও কাদানে গ্যাসের শেল ছুঁড়েছিল পুলিশ।

মৃত উলেন রায়

তবে, বিজেপির রাজ্য ,সভাপতি দিলীপ ঘোষ অভিযোগ করেছেন, পুলিশের পক্ষ থেকে ব্যাপক লাঠিচার্জ করা হয় এবং রবাট বুলেটও ছোঁড়া হয়। সেই জোড়া আঘাত সহ্য করতে না পেরেই উলেন মাটিতে লুটিয়ে পড়েছিলেন। পরে হাসপাতালে নিয়ে গেলে তাঁর মৃত্যু হয়েছে বলে জানানো হয়। উলেন রায় ও অন্যান্য আহত বিজপি কর্মীদের দেখতে হাসপাতালে এসেছিলেন দিলীপ ঘোষ। তিনি অভিযোগ করেন পুলিশ পাখি মারার বন্দুক থেকে গুলি ছুঁড়েছে। অনেক বিজেপি কর্মীই সেই গুলির আঘাতে আহত হয়েছেন। উলেন রায়ের গায়েও সেই গুলির আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

কৈলাস বিজয়বর্গীয়-র দাবি, শান্তিপূর্ণভাবে মিছিলের উপর পুলিশ-ই প্রথম মারমুখী হয়ে উঠেছিল। শান্তিপূর্ণ মিছিলে পুলিশ যেভাবে আক্রমণ করেছে তাতে গণতান্ত্রিক অধিকার খর্ব করা হয়েছে। পুলিশের ভূমিকার সমালোচনা করে বিজেপির এই কেন্দ্রীয় নেতা ফের বাংলায় রাষ্ট্রপতি শাসনের দাবি করেছেন। একই সুর শোনা গিয়েছে, দার্জিলিং-এর বিজেপি সাংসদ রাজু বিস্তা-র মুখেও।
 

হাসপাতালে বিজেপি নেতা-কর্মীরা

অন্যদিকে, পুলিশ-এর পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে এদিনের অভিযান প্রতিহত করতে কোনও গুলি চালানো হয়নি। একজনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গিয়েছে, কিন্তু, কীভাবে তাঁর মৃত্যু হয়েছে, তা ময়না তদন্তের রিপোর্টেই জানা যাবে। পুলিশ গুলিও চালায়নি, লাঠিও চালায়নি। শুধু জলকামান ও কাঁদানে গ্যাস ব্যবহার করা হয়েছে।

রাজ্যের মন্ত্রী তথা তৃণমূল বিধায়ক গৌতম দেব এদিনের ঘটনার জন্য সরাসরি বিজেপি-কেই দায়ী করেছেন। উলেন রায় নামে কোনও বিজেপি কর্মীর মৃত্যুর খবর তিনি পাননি বলে জানিয়েছেন তিনি। তাঁর মতে বিজেপি হিংসার আমদানি করে রাজ্যে অশান্তি তৈরি করার ষড়যন্ত্র করেছেন। তিনি আরও বলেন, বিজেপি-র এই হিংসাত্মক রাজনীতির বিরুদ্ধে তৃণমূল প্রতিরোধ তৈরি করবে।