বাংলায় এসে আবারও 'জয় শ্রীরাম' স্লোগান বিতর্ক উস্কে দিলেন কেন্দ্রীয় স্বারাষ্ট্র মন্ত্রী তথা বিজেপি নেতা অমিত শাহ। বৃহস্পতিবার অসম হয়ে বাংলায় আসেন তিনি। কোচবিহারের জনসভা করেন অমিত শাহ। আর সেখানেই তিনি জয় শ্রীরাম স্লোগান দিলেন। একই সঙ্গে সভায় উপস্থিত বিজেপির সমর্থক ও অনুগামীদেরও দরাজ কণ্ঠে জয় শ্রীরাম স্লোগান দেওয়ার আবেদনও জানিয়েছেন অমিত শাহ। এদিন অমিত শাহ বলেন বাংলায় কেন জয় শ্রীরাম বলা যাবে না? এখানে যদি জয় শ্রীমার স্লোগান তোলা না যায় তাহলে কী পাকিস্তানে গিয়ে মানুষ জয় শ্রীরাম বলবে? অমিত শাহ অভিযোগ করেন এই রাজ্যের পরিবেশ এমন তৈরি করা হয়েছে যেথানে জয় শ্রীরাম বলা মানেই একটি অপরাধ করা। তারপরেই তিনি বলেন কেন এটাকে অপরাধ হিসেবে চিহ্নিত করা হবে? তারপরই তিনি বলেন গোটা দেশ তথা বিশ্বের মানুষই ভারতের আরাধ্য দেবতাকে জয় শ্রীরাম বলে স্মরণ করে। 

এদিন জনসভায় অমিত শাহ বলেন জয় শ্রীরাম স্লোগান শুনতেই রেগে যাচ্ছেন মমতা দিদি। কিন্তু সভায় উপস্থিতি শ্রোতার উদ্দেশ্যে অমিত শাহ বলেন ভোটের পর মমতা দিদিই এটির জপ করতে শুরু করবেন। জানুয়ারিতে নেতাজির জন্মদিনের একটি সরকারি অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর উপস্থিতিতে জয়শ্রীমার স্লোগান দেওয়া হয়েছিল। তাতে ক্ষুব্ধ মমতা বন্দ্যোপাধ্য়ায় বক্তব্য রাখবে না বলেও জানিয়ে দিয়েছিলেন।  তবে বিষয়টি নিয়ে নীরব ছিলেন প্রধানমন্ত্রী। 

এদিন অমিত শাহ বলেন আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনে বাংলায় লড়াই  হবে প্রধানমন্ত্রী উন্নয়নের মডেলের সঙ্গে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ধ্বংসের মডেলের। তিনি আরও বলেন ২৯৪ আসনের বঙ্গ বিধানসভায় ২০০টি আসন জয়ের লক্ষ্যেই ভোট যুদ্ধ নামছে পদ্ম শিবির। একই সঙ্গে অমিত শাহ বলেন, প্রধানমম্ত্রী মোদীর সরকার জনকল্যাণের জন্য কাজ করে আর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার ভাইপোর কল্যাণের জন্য কাজ করে বলেও অভিযোগ করেন অমিত শাহ।