স্ট্রেচারে একটি রক্তাক্ত মৃতদেহ আর সেই দেহ জড়িয়ে ধরে হাহাকাররত তার পরিবারের লোকজন।  এমনই হৃদয়বিদারক দৃশ্যের সাক্ষী রইল হালিশহর হাসপাতাল চত্বর। 'ওঁদের অপরাধ ওনারা বিজেপি করতেন', চাপান উতোর চলছে ওই এলাকায়।

 

 

 

 শনিবার হালিশহরে গৃহ সম্পর্ক অভিযান চলাকালীন তৃনমুল দুষ্কৃতীরা বাইকে করে এসে হামলা চালায় বিজেপি কার্যকর্তাদের উপর বলে অভিযোগ। সৈকত ভাওয়াল নামে একজনের মৃত্যু ঘটে নৃশংস অত্যাচারে। মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছেন আরও ৬ জন। 'ওই মৃতদেহ শুধু একটি মানুষের মৃতদেহ নয়, এই রাজ্যের ঘুণ ধরা গণতন্ত্রের লাশ। আর কত মায়ের কোল খালি হলে তৃপ্ত হবে তৃনমূল। আর কত পরিবারের হাহাকারে বিদীর্ণ হবে আকাশ। মানুষ সহ্য করবে না। আমাদের কার্যকর্তাদের রক্ত, ঘাম, কষ্ট, পরিবারের হাহাকার ব্যর্থ যাবে না', এই ঘটনা প্রসঙ্গে আরও বৃহত্তর আন্দোলনের হুঁশিয়ারি দেন বিজপুরের বিধায়ক শ্রী শুভ্রাংশু রায়।

 

 

 

 

২০২১ সালের ভোটের সময় যতো এগিয়ে আসছে ততোই রাজ্য রক্তাক্ত হয়ে উঠছে। এমনটাই মত রাজনৈতিক মহলে। সন্দেহ নেই হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হবে তৃণমূল-বিজেপি শিবিরে। তবে মৌখিক আক্রমণ ছেড়ে খুনোখুনির পরিমাণ ক্রমশই বেড়ে চলেছে বাংলায়। উল্লেখ্য, এই ঘটনার পর আশঙ্কাজনক ওই ৬ সদস্যকে হাসপাতালে দেখতে গিয়েছেন অর্জুন সিং।