নদিয়ার ভীমপুর এলাকায় চোরাচালান করতে গিয়ে বিএসএফ-এর হাতে ধরা পড়ল ১ পাচারকারী। তার কাছ থেকে ৭ কেজি মহিলাদের চুল বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে বলে জানানো হয়েছে সীমান্ত রক্ষী বাহিনীর পক্ষ থেকে। বিএসএফ জানিয়েছে, গোয়েন্দা শাখার পক্ষ থেকে নিষিদ্ধ দ্রব্য চোরাচালানের বিষয়ে তথ্য ছিল তাদের কাছে। এরপরই সীমান্ত এলাকায় টহলদারি বাড়িয়েছিল বিএসএফ।

এদিন সকাল ১০টা নাগাদ হোরান্দিপুর বর্ডার আউট পোস্ট এলাকায় একটি কলা বাগানের মধ্যে এক সন্দেহজনক ব্যক্তিকে দেখতে পেয়ে তাকে চ্যালেঞ্জ করেছিল। বিএসএফের বাহিনী দেখেই সে পালাতে গিয়েছিল। কিন্তু জওয়ানরা তাকে তাড়া করে ধরে এবং তার কাছ থেকে ১২ বান্ডিল মহিলাদের চুল পাওয়া যায়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা গিয়েছে তার নাম মহিনুল মন্ডল, নদিয়ার ভীমপুর এলাকার বাসিন্দা। মাত্র ২০০ টাকার বিনিময়ে তিনি এই চুল পৌঁছে দিতে যাচ্ছিলেন, বাংলাদেশের চুয়াডাঙ্গার এক ব্যক্তির কাছে।
 
বাজেয়াপ্ত ওই চুল-সহ ওই চোরাচালানকারীকে নদিয়ার ভীমপুর থানারা পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে। বিএসএফ-এর পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, ভারত-বাংলাদেশ সীমান্ত ধরে বিভিন্ন পণ্য পাচার হয়। এই পাচার রোধে কঠোর পদক্ষেপ নিচ্ছে বিএসএফ। যে কারণে চোরাচালানীরা সীমান্ত অঞ্চলে তাদের কার্যক্রম চালাতে সমস্যায় পড়ছে। বেশিরভাগ কুখ্যাত পাচারকারীদের অনেককেই গ্রেফতার করা হয়েছে।