বিধানসভা নির্বাচনের আগে বিজেপির পরিবর্তন যাত্রায় সায় দিল রাজ্য সরকার। ২০১৯ সালে লোকসভা ভোটের আগে বিজেপি এই অনুমতি চাইলেও, তা গ্রাহ্য করেনি রাজ্য সরকার। কিন্তু, একুশের নির্বাচনের আগে সেই ঘটনার পুনরাবৃত্তি আর হল না। রাজ্য বিজেপির কর্মসূচিতে সায় দিলেও, এই পরিবর্তন যাত্রা নিয়ে জনস্বার্থ মামলা হল কলকাতা হাইকোর্টে। এই রথযাত্রার কারনে রাজ্যের আইন-শৃঙ্খলার অবনতি হতে পারে। এমনই আশঙ্কা প্রকাশ করে আদালতে মামলা দায়ের হয়। সেই জনস্বার্থ মামলা খারিজ করে দিল কলকাতা হাইকোর্ট। এর জেরে বিজেপির পরিবর্তন যাত্রায় আর কোনও আইনি বাধা রইল না।

আরও পড়ুন-'উত্তরপ্রদেশের কেবল পুলিশ নয়, সাংবাদিকরাও খুন হয়', মুর্শিদাবাদে বিস্ফোরক মমতা

মামলার শুনানিতে বিচারপতি স্পষ্ট জানান, এটা কোনও জনস্বার্থ মামলা নয়। বরং এটা রাজনৈতিক উদ্দেশ্য প্রণোদিত। রাজনৈতিক সমস্যা মেটানোর জন্যই এটা মামলা আকারে পেশ করা হয়েছে। আদালত রাজনৈতিক সমস্যা মেটানোর স্থান নয়। এই সমস্যা মেটানোর জন্য অনেক গণতান্ত্রিক পদ্ধতি রয়েছে। তার মধ্যে নির্বাচন অন্যতম। প্রসঙ্গত, বিজেপির পরিবর্তন যাত্রার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছিলেন রামপ্রসাদ সরকার। তিনি তৃণমূলের লিগ্যাল সেলের সদস্য বলে পরিচিত।

আরও পড়ুন-'আবার মমতা', শঙ্খ ধ্বনি-উলু ধ্বনি বাজিয়ে শপথ যাত্রা তৃণমূলের মহিলাদের, দেখুন ছবিতে-ছবিতে

টের আগে সাড়া ফেলতে বাংলায় পরিবর্তন যাত্রার কর্মসূচি নিয়েছে বিজেপি। ভোটের জন্য বাংলাকে আগেই পাঁচটা জোনে ভাগ করেছে বিজেপি। সেই পাঁচটি জোন থেকে ৬ ফেব্রুয়ারি বিজেপির রথযাত্রা কর্মসূচি শুরু হয়। প্রতিটি বিধানসভা কেন্দ্রেই বিজেপির এই রথযাত্রা পৌঁছাবে বলে জানিয়েছেন বিজেপির নেতারা। এই অবস্থায় বিজেপির এই পরিবর্তন যাত্রায় আইনশৃঙ্খলা নিয়ে জনস্বার্থ মামলা হয় হাইকোর্টে। কিন্তু সেই সেই আবেদন খারিজ করল আদালত। এর ফলে রথযাত্রায় থাকল না কোনও আইনি সমস্যা।