পশ্চিমবঙ্গে কেন আট দফায় নির্বাচন হবে? নির্বাচন কমিশন পাঁচ রাজ্যে নির্বাচনের নির্ঘণ্ট প্রকাশের পরেই সাংবাদিক সম্মেলনে তোপ দাগলের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বলেন, বিহারে ২৪০টি আসন। কিন্তু তিন দফায় নির্বাচন হয়েছিল। অসমে তিন দফায় নির্বাচন করা হবে বলেও জানিয়েছে কমিশন। তামিলনাড়ু ও কেরলে এক দফায় নির্বাচন হচ্ছে। আর বাংলা ২৯৪টি আসন। কিন্তু এই রাজ্যে আট দফায় নির্বাচন হওয়ার কথা ঘোষণা করা হয়েছে। কেন এই সিদ্ধান্ত তা নিয়েও প্রশ্ন তোলেন তিনি। তবে তিনি জানিয়েছেন নির্বাচন কমিশনকে মান্যতা দিয়ে তারা যে ভাবে বলেছে সেইভাই রাজ্যে নির্বাচন হবে। নির্বাচন কমিশন নিরপেক্ষ নয় বলেও অভিযোগ করেন তিনি। তিনি বলেন কাকে সুবিধে করে দেওয়ার জন্য এই নির্বাচনী নির্ঘণ্ট।বিজেপির সুবিধের জন্যেই এই নির্ঘণ্ট তৈরি হয়েছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি। 

ভোট বাংলার দায়িত্বে আবারও আসছেন অজয় নায়েক আর বিবেক দুবে, নজিরবিহীন এবার দুই পুলিশ পর্যবেক্ষক ..

ভোটের দিন ঘোষণার মাত্র এক ঘণ্টা আগেই সোশ্যাল মিডিয়ায় বার্তা, বড় ঘোষণা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ..

নির্বাচন কমিশনকে মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূল কংগ্রেস সুপ্রিমো বেশ কয়েকটি প্রশ্নও করেন। তিনি বলেন  কেন একটি জেলাকে অর্ধেক করে ভোট নেওয়া হচ্ছে? রীতিমত কটাক্ষ করে মমতা বলেন 'একটা জেলাকে ভাগ করে তার পার্ট ওয়ান পার্ট টু করে, আমাদের বিএ পার্ট ওয়ান পার্ট টু শেখাচ্ছে। দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলায় তৃণমূলের জোর বেশি হওয়ায় সেখানে তিন বারে ভোট নেওয়া হবে। এগুলি নরেন্দ্র মোদী আর অমিত শাহের কথায় হচ্ছে? এখানে ২৩ দিনের ফুটবল মাঠ, এখানে খেলা চলবে আটটি ফেজে। হারিয়ে ভূত করে দেব, কারণ তৃণমূলস্তর থেকেই তারা উঠে এসেছে। '

 

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন ৪০ বছর ধরে তিনি বাংলায় রাজনীতি করছেন। ছাত্র রাজনীতির দিনগুলি থেকেই জেলা থেকে বিধানসভা সব চেনেন বলেও তিনি হুঁশিয়ারি দিয়েছেন। বিজেপি বাংলায় বিভাজনের রাজনীতি করছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি। বাংলাকে তিনি ভাগ করতে দেবেন না বলেও জানিয়েছেন তিনি। কোনও গুন্ডা বাংলা শাসন করবে না।  বাংলার মানুষ বাংলা শাসন করবে বলেও স্পষ্ট করে জানিয়েছেন তিনি। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন প্রধানমন্ত্রী ও স্বারাষ্ট্র মন্ত্রী এই রাজ্যের নির্বাচনের জন্য যদি ক্ষমতার অপব্যবহার করে তাহলে তার প্রতিবাদ করা হবে বলেও জানিয়েছেন তিনি। তিনি বলেন গোটা দেশে একমাত্র মহিলা মুখ্যমন্ত্রী তিনি। আর তাঁকেই ভয় পাচ্ছে কেন্দ্রীয় সরকার। আর সেইজন্য সবক্ষমতা দিয়ে তাঁকে প্রতিহত করার চেষ্টা করা হচ্ছে।