মমতাকে ফের নিশানা দিলীপের। শীতলকুচি নিয়ে দিলীপের মন্তব্যে ইতিমধ্যেই কমিশনে তৃণমূল। যদিও শীতলকুচিকাণ্ডে মমতাকে ফের নিশানা করে দিলীপ এবার বলেছেন-'মানুষকে তিনি উত্তেজিত করে, মৃত্যুর মুখে ঠেলছেন'।


আরও পড়ুন, বারাসাতে মমতার সভা বাতিল করল কমিশন, ওদিকে শীতলকুচিকাণ্ডের পর আজ রাজ্যে শাহ-মোদী 

 

 

শীতলকুচিকাণ্ডে 'সম্পূর্ণ দায়ী মমতা বন্দ্য়োপাধ্যায়, মানুষকে তিনি উত্তেজিত করেছেন', এদিন ফের বললেন দিলীপ। তিনি আরও বলেছেন, মুখ্যমন্ত্রীর কাছ থেকে এমন কিছু আশা করা যায় না। উনি আগেও মানুষকে উত্তেজিত করেছেন। এই দায় সম্পূর্ণ ওনার। উনি মানুষকে মৃত্যুর মুখে ঠেলে দিচ্ছেন। মৃতদেহ নিয়ে রাজনীতি করছেন তিনি। কিন্তু এবার সেই সুযোগ পাননি।  কমিশন কোচবিহারে ৭২ ঘন্টা নিষেধাজ্ঞা জারি করায় এবার তিনি ফিরে এসেছেন। মানুষের মৃতদেহ নিয়ে রাজনীতি করা বা মানুষকে উত্তেজিত করার রাজনীতি বন্ধ হোক। আমরা কমিশনকে জানিয়েছিলাম। মমতা কমিশনের থেকে চিঠিও পেয়েছিলেন। রাজ্যের আই শৃঙ্খলা কোন দিকে যাচ্ছে মানুষকে বুঝতে হবে। সবাইকে জানতে হবে যে কাকে দশ বছর ধরে মানুষ মুখ্যমন্ত্রী বানিয়ে রেখেছে।

 

আরও পড়ুন, ' ওরা গুলি স্প্রে করেছে', শীতলকুচি কাণ্ডের প্রতিবাদে উত্তরবঙ্গে কালো পোশাকে মমতা 

 

 

প্রসঙ্গত, রাজ্যে চতুর্থ দফার ভোটের দিনে শীতলকুচি কাণ্ডের পর অনেকদূর জল গড়িয়েছে। দিলীপ পাল্টা বলেছেন, বাড়াবাড়ি করলে জায়গায় জায়গা শীতলকুচি হবে। আর এই মন্তব্যে ঘাসফুলে শিবিরে উদ্বেগের ঝড় ওঠে। ক্ষুব্ধ হয়ে কমিশন-কেন্দ্রীয়বাহিনী-মোদী-শাহ-দিলীপ কাউকেই নিশানা করতে ছাড়েননি মমতা। মোদী আগেই বলেছেন, 'দিদির মাথা খারাপ হয়ে গিয়েছে।' আর শীতলকুচি কাণ্ডের পর মমতা আরও একধাপ এগিয়ে,  রবিবার মমতা টুইটে তোপ দেগে বলেছেন, 'মডেল অব কনডাক্ট-এর বদলে মোদী অব কনডাক্ট করুক কমিশন'। এদিকে সোমবার শীতলকুচি কাণ্ডের পর রাজ্য়ে প্রচারে সভায় ময়দানে শাহ-মোদী। যদিও আগেরদিন রবিবার শাহ রোড শো-সাংবাদিক সম্মলনে মমতাকে যা উত্তর দেবার দিয়েই দিয়েছেন। তবুও এদিন মোদী কী বার্তা দেন, তার অপেক্ষায় রাজ্যবাসী।

 

আরও পড়ুন, Election Live Update- বারাসাতে মমতার জেদের সভা বাতিল করল কমিশন, ঐতিহাসিক শহরে আসছেন শুধু মোদী