ভোটের মুখে ফেরে প্রশাসনিক পদে বড়সড় সিদ্ধান্ত নিল নির্বাচন কমিশন। এর আগে রাজ্যের ডিজিপি ও এডিজি আইন শৃঙ্খলার পদে দায়িত্বের পরিবর্তন করেছে কমিশন। এবার রাজ্যের নিরাপত্তা উপদেষ্টা সুরজিত কর পুরকায়স্থকে অপসারণ না করলেও, পদটিকে নিষ্ক্রিয় করল নির্বাচন কমিশন। বুধবার নবান্ন থেকে রাজ্যের মুখ্যসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায় এই সিদ্ধান্তের কথা জানান। মমতার ঘনিষ্ঠ বলে পরিচিত রাজ্যের নিরাপত্তা উপদেষ্টা সুরজিৎ পুরকায়স্থ। তাকে নিষ্ক্রিয় করায় হইচই পড়ে গিয়েছে রাজনৈতিক মহলে।

নির্বাচন কমিশনের এই সিদ্ধান্তের ফলে নির্বাচন সংক্রান্ত কোনও কাজের  সঙ্গে যুক্ত থাকতে পারবেন না তিনি।  পদটি নিষ্ক্রিয় করায় নতুন কোনও ব্যক্তিকে আনার প্রশ্নও ওঠে না। কমিশনের তরফে জানানো হয়েছে এই মুহূর্তে পদটির কোনও দরকার নেই। এই সিদ্ধান্তের পর তৃণমূলের সাংসদ সৌগত রায় জানিয়েছেন, একের পর এক নির্বাচন কমিশনের এমন সিদ্ধান্ত পক্ষপাতমূলক। যা একেবারেই কাম্য নয়। যদিও পদ্ম শিবিরের দাবি, মমতা ঘনিষ্ঠ হওয়ায় নির্বাচনে নিজের প্রভাব খাটাতে পারেন তিনি। তাই সুষ্ঠু নির্বাচন করতে কমিশন যে কোনও সিদ্ধান্ত নিতে পারে।

প্রসঙ্গত, দিন কয়েক আগে রাজ্যের নিরাপত্তা উপদেষ্টা সুরজিৎ পুরকায়স্থকে তলব করা হয়েছিল কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার পক্ষ থেকে। চিটফান্ড কাণ্ডে তথ্য জোগাড় করার জন্যই ওনাকে তলব করেছিল কেন্দ্রীয় এজেন্সি। আর এবার ওনাকে কমিশন নিজের পদ রেখে নিষ্ক্রিয় করে দিল। শুধু ডিজিপি ও এডিজি আইন শৃঙ্খলা বা রাজ্যের নিরাপত্তা উপদেষ্টা নয়, সোমবার রাজ্যের সমস্ত পুরসভা থেকে রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বদের পুর-প্রশাসক মণ্ডলীর পদ থেকে হটানোর নির্দেশও দিয়েছিল কমিশন। তারপর ফিরহাদ হাকিম সহ সকলেই ইস্তফা দেন।