গত সপ্তাহেই রাজ্যে এসেছিলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী স্মৃতি ইরানি, আসন্ন পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপির ৪০ জন তারকা প্রার্থীর অন্যতম। উপলক্ষ ছিল শুভেন্দু অধিকারীর মনোনয়ন পেশ। আর তার আগে জনসভা থেকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে গুরুতর অভিযোগ এনেছেন তিনি। তাঁর দাবি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর চালু করা কেন্দ্রীয় প্রকল্পগুলির নাম বদলে তাঁর প্রকল্প বলে মিথ্যা দাবি করে মানুষকে বিভ্রান্ত করছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও তৃণমূল কংগ্রেস সরকারকে তীব্র আক্রমণ করে স্মৃতি ইরানি বলেন, প্রধানমন্ত্রী কিষান নিধি-সহ কেন্দ্রীয় প্রকল্পগুলির সুবিধা বাংলার অভাবী মানুষরা পান না। 'প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী যেখানে জনগণের কল্যাণে দিনরাত এক করে কাজ করে চলেছেন, সেখানে দিদি বেশ কয়েকটি কেন্দ্রীয় প্রকল্পের কৃতিত্ব দাবি করে সেগুলির সঙ্গে ফটো তুলতে ব্যস্ত। দিদি কেন্দ্রীয় প্রকল্পগুলির নাম পরিবর্তন করে তাদের কর্মসূচি বলে দাবি করছেন।'

একইসঙ্গে  রাজনৈতিক হিংসা নিয়েও মমতা সরকারকে আক্রমণ করেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী। 'বাংলা নিজের মেয়েকেই চায়', তৃণমূলের এই নির্বাচনী স্লোগানকে কটাক্ষ করে স্মৃতি ইরানি যাঁর দল রাজ্যের জনগণের উপর ব্যাপক পরিমাণ রাজনৈতিক হিংসা চালায়, সেই মেয়েকে কে ভোট দেবে? উপস্থিত জনতার উদ্দেশ্যে তিনি প্রশ্ন ছুঁড়ে দেন, 'জনগণ কি এমন মেয়েকে ভোট দেবে, যে ৮০ বছরের বৃদ্ধামা-এর উপর নির্যাতন চালায়? আপনারা কি এমন মেয়েতে ভোট দেবেন, যার দল বিজেপি কর্মীদের ফাঁসি দেয়? রাজ্যের মানুষ 'আসল পরিবর্তন'-এর অপেক্ষা করছে বলে দাবি করেন তিনি।