ভয়ানক পরিস্থিতি ধারন করল নন্দীগ্রামের বয়াল। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের এলায়ায় ৭ নম্বর বুথে ধুমধুমার পরিস্থিতি। এদিন সকাল থেকেই দেখা গিয়েছে এই বুথে তৃণমূলের এজেন্টকে বসতে দেওয়া হয়নি। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গেই বদলে যায় ছবি। দেলা দেড়টা নাগাদ বুথ পরিদর্শণে বেরিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। সাত নম্বর বুথ এলাকাতে আসতেই সেখানে গ্রামবাসীরা মুখ্যমন্ত্রীকে দেখে ক্ষোভে ফেটে পড়ে। অভিযোগ জানায় তাঁদের ভোট দিতে দেওয়া হয়নি সকাল থেকে। 

পাশাপাশি উঠে আসে অভিযোগ দেদার ছাপ্পা ভোট চলেছে এই এলাকাতে। বয়াল স্কুলে মুখ্যমন্ত্রী প্রবেশ করার মুখেই ভয়ঙ্কর পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়। সামনে স্কুল মাঠেই তৃণমূল ও বিজেপির মধ্যে সংঘর্ষ লাগে। পরিস্থিতি সামাল দিতে পুলিশ, ব়্যাপ ও কেন্দ্রিয় বাহিনি মাঠে নেমে পড়ে। মুখ্যমন্ত্রীকে দেখা মাত্রই জয় শ্রীরাম স্লোগান দিতে শুরু করে সকলে। মার মুখী দুই পক্ষের মধ্যে কোনও অপৃতিকর ঘটনা এড়াতেই তৎপর পুলিশ। 

পরিস্থিতি লক্ষ্য করে মুখ্যমন্ত্রী ফোন করেন রাজ্যপালকে। জানান ছাপ্পা ভোটের পড়েছে সেখানে। তিনি এটা নিয়ে আদালতে যাবেন, কেন কোনও পদক্ষেপ নেওয়া হয়নি, সাফ জানালেন মুখ্যমন্ত্রী। তাঁকে এখনই স্কুল থেকে বের করে নিয়ে যাওয়ার কথা ভাবা হচ্ছে না, সুরক্ষার কথা ভেবে। তাঁর কথা অনুযায়ী এখনও পর্যন্ত ৮০ শতাংশ ছাপ্পা ভোট হয়ে গিয়েছে।