রাজনীতি থেকে অবসর চেয়ে মুখ্যমন্ত্রীকে চিঠি দিয়ে মন্ত্রিত্ব ছেড়েছেন লক্ষ্মীরতন শুক্লা। ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রীর পদ ছেড়ে বর্তমানে তিনি বিধায়ক হিসেবেই থাকবেন। এই মর্মে মুখ্যমন্ত্রীকে চিঠি দিয়ে জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। মমতা বলেন, ''লক্ষ্মীর সঙ্গে দলের কোনও সমস্য়া নেই। ও খেলাধূলা নিয়েই থাকতে চাই''।

ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রীর পদ থেকে ইস্তফা দেওয়ার পর হাওড়া জেলার তৃণমূল সভাপতির পদ থেকে সরে দাঁড়ান লক্ষ্মী। এই প্রসঙ্গে মঙ্গলবার নবান্নে সাংবাদিক বৈঠক করে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ''কেউ পদত্যাগ করতেই পারে। তাতে কী এসে যায়। লক্ষ্মী ভাল ছেলে, ও পদত্যাগ করেছে। রাজ্য বা দলের সঙ্গে লক্ষ্মীর ভুল বোঝাবুঝি বলে কিছুই নেই। রাজ্যপালের কাছে আমি আবেদন জানিয়েছি যে, লক্ষ্মীর আবেদন পত্র যেন গ্রহণ করা হয়। আমি চাই ও ভাল করে খেলাধূলা করুক''।

এরপরই মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ''লক্ষ্মী কিন্তু চিঠিতে মুখ্যমন্ত্রী পদত্য়াগের কথা লেখেনি। ও লিখেছে, খেলার প্রয়োজনে সমস্তরকম রাজনীতি থেকে সরে যেতে চাই। আমাকে খেলাধূলায় বেশি সময় দিতে হবে। বিধানসভা ভোটের আগে পর্যন্ত আমি বিধায়ক হিসেবে কাজ করতে চাই। বাকি সব অন্যান্য জায়গা থেকে আমাকে অব্যাহতি দেওয়া হোক''।