অবশেষে 'শাহি' বিমানে দিল্লির উড়ে গেলেন রাজ্যের প্রাক্তন বন মন্ত্রী রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়। তার সঙ্গী হলেন উত্তর পাড়ার বিধায়ক প্রবীর ঘোষাল, বালির বিধায়ক বৈশালী ডালমিয়া, হাওড়ার প্রাক্তন মেয়র রথীন চক্রবর্তী ও অভিনেতা রুদ্রনীল ঘোষ। রাজধানীতে গিয়ে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী অমিত শাহের সঙ্গে বৈঠক করবেন রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়। তারপর দিল্লি থেকেই বিজেপিতে যোগ দিতে পারেন তৃণমূল ত্যাগিরা। একইসঙ্গে হাতে পদ্ম পতাকা তুলে নেবেন রুদ্র নীল ঘোষ। 

শুক্রবার রাতেই রাজ্য় সফরে আসার কথা ছিল অমিত শাহের। কিন্তু দিল্লিতে বিস্ফোরণের কারণে তা বাতিল ঘোষণা হয়। সব অনুষ্ঠান বাতিল হলেও, ঠিক হয় যে রবিবার হাওড়ার ডুমুরজলার সভা হবে। অমিত শাহের বদলে সেখানে উপস্থিত থাকবেন অন্য কেন্দ্রী শীর্ষ নেতৃত্ব। সেখানেই ঘাসফুলের পরিবর্তে পদ্ম পতাকা ধরবেন রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়, প্রবীর ঘোষাল, বৈশালী ডালমিয়ারা। কিন্তু অমিত শাহ বিশেষ চার্টাড বিমানে আজই রাজবী বন্দ্যোপাধ্যায়দের দিল্লি উড়ে আসতে বলেন। পাঠানো হয় বিমানও।  দিল্লি যাওয়ার আগে বিমান বন্দরে দাঁড়িয়ে রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়ে জানিয়ে গেলেন, ‘’বিশেষ সম্মান দেখিয়ে এই বিমান পাঠিয়েছেন অমিত শাহজি।‘’

আজ সন্ধাতেই রাজধানী থেকে বিজেপিতে যোগ দিতে পরেন তৃণমূলের দলত্যাগিরা। তাররই নিজের বক্তব্য রাখবেন বলে জানিয়েছেন রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়। তবে ডুমুরজলার সভা নির্ধারিত সময়েই হবে। সেখানে প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখার কথা চলছে রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়ের। সভায় উপস্থিত থাকবেন কেন্দ্রীয় বস্ত্র মন্ত্রী স্মৃতি ইরানি। অমিত শাহ না এলেও শেষমুহূর্তে জানা যাচ্ছে ভার্চুয়ালি হয়তো সভায় বক্তব্য রাখবেন তিনিও। তারপর লড়াইয়ের ময়দানে বিজেপিতে তার নতুন ইনিংস শুরু করবেন রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়।