আর কিছুক্ষণের অপেক্ষা। তারপরই মেদিনীপুরে অমিত শাহের সভায় বিজেপিতে যোগ দিতে চলেছেন শুভেন্দু অধিকারী। সঙ্গে রাজ্যের শাসক দলে ভাঙন ধরিয়ে বিজেপিতে যোগ দিতে চলেছে বিধায়ক, এমপি, প্রাক্তন এমপি, প্রাক্তন সাংসদ, জেলা স্তরের নেতৃত্ব সহ ঝাঁকে ঝাঁকে তৃণমূল নেতা-নেত্রীরা। বঙ্গ রাজনীতির সবথেকে বড় চমকের অপেক্ষায় প্রহর গুনছে মেদিনীপুরের অমিত শাহের সভায়। আর সভার আগে সবার প্রথম এশিয়ানেট নিউজ বাংলার হাতে সেই তালিকা। যারা যারা যোগ দিতে চলেছেন পদ্ম শিবিরে। একনজরে দেখে নেওয়া যাক সেই তালিকা।

বিজেপিতে যোগ দিতে চলেছেন, সাংসদ সুনীল মণ্ডল, উত্তর কাঁথির বিধায়ক বনশ্রী মাইতি, হলদিয়াক বিধায়ক তাপসী মণ্ডল, তমলুকের বিধায়ক অশোক দিন্দা, সুদীপ মুখোপাধ্যায় পুরুলিয়ার বিধায়ক, কালনার বিধায়ক বিশ্বজিৎ কুণ্ডু, পূর্ব বর্ধমানের বিধায়ক সৈকত পাঁজা, বারাকপুরের বিধায়ক শীলভদ্র দত্ত, মালদার গাজোলের বিধায়ক দীপালী বিশ্বাস, নাগরাকাটার বিধায়ক সুগনা মুণ্ডা। সবমিলিয়ে মোট ৯ জন বর্তমান  বিধায়ক বিজেপিতে যোগ দিচ্ছেন। একজন বর্তমান সাংসদ সুনীল মণ্ডল। তালিকাটা আরও দীর্ঘ হওয়ার সম্ভাবনাও উড়িয়ে দেওয়া যাচ্ছে না। এছাড়া একাধিক প্রাক্তন বিধায়ক, সাংসদ, জেলা পরিষদের সদস্য অমিত শাহের মঞ্চে যোগ দিতে চলেছেন বিজেপিতে।

শাসদ দলের কপালে চিন্তার ভাঁজ আরও বাড়িয়ে ৬ জন সংখ্যালঘু নেতা যোগ দিতে চলেছেন বিজেপিতে।  ফলে তৃণমূলের সংখ্যালঘু ভোটব্যাঙ্কেও যে বিজেপি থাবা বসাতে চলেছে। এছাড়াও দীর্ঘ তালিকা রয়েছে রাজ্যের বিভিন্ন দল থেকে বিজেপিতে যোগদানের। তারমধ্যে তৃণমূল কংগ্রেস নেতা-কর্মীরাই বেশি। এছাড়া একাধিক চমক থাকতে পারে বলেও আশঙ্কা করা হচ্ছে। সব মিলিয়ে আজ অমিত শাহের সভায় বিজেপিতে যোগ দানের লাইনাট দীর্ঘ থেকে দীর্ঘতর হতে চলেছে তা বলাই যায়।