স্বামী বিবেকানন্দের জন্মদিন ঘিরে আরাও একবার তৃণমূল কংগ্রেস নেতা অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় ও শুভেন্দু অধিকারীর দ্বৈরথ দেখা আর হল না কলকাতার। কারণ তৃণমূল কংগ্রেসের মিছিলে যুব তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় উপস্থিত থাকবেন। কিন্তু উত্তর কলকাতায় বিজেপি সম্পূর্ণ কর্মসূচিতে উপস্থিত থাকবেন না শুভেন্দু অধিকারী। তিনি শুধুমাত্র মাল্যদান অনুষ্ঠানেই উপস্থিত থাকবেন বলে জানা গেছে। দলের বাকি নেতা কর্মীদের সঙ্গে তিনি স্বামিজির মূর্তিতে মাল্যদান করে শ্রদ্ধা জানাবেন। 

সোমবার সকাল ১০টায় শ্যামবাজার থেকে মিছিল শুরু করবে গেরুয়া শিবির। তবে তার আগে সিমলা স্ট্রিটে বিবেকানন্দের বসতবাড়ি তাঁর মূর্তিতে মাল্যদানের যে কর্মসূচি বিজেপি গ্রহণ করেছে তাতে উপস্থিত থাকবেন শুভেন্দু অধিকারী। শুভেন্দুর সঙ্গে থাকবেন এই রাজ্যে বিজেপির নির্বাচনী প্রস্তুতির দায়িত্বে থাকা উত্তর প্রদেশের উপ মুখ্যমন্ত্রী কেশবপ্রসাদ মৌর্য। 

মিছিলে না থাকলেও শুভেন্দু অধিকারীর মত বিবেকানন্দর মূর্তিতে মাল্যদান করবেন বিজেপির অপর নেতা কৈলাস বিজয়বর্গীয়। বিবেককান্দর জন্মদিনে আগেই মিছিল করার কথা ঘোষণা করেছিল বিজেপি। তাৎপর্যপূর্ণভাবে একই দিনে বিবেকের ডাক নামে পাল্টা মিছিলের কর্মসূচি ঘোষণা করে তৃণমূল। আর সেখানেই উপস্থিত থাকার কথা অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের। 

শুভেন্দু অধিকারীর ঘনিষ্ঠ মহলের বক্তব্য অনুযায়ী অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় ও প্রশান্ত কিশোরের সঙ্গে মনোমালিন্যের কারণেই তৃণমূল ছেড়েছিলেন শুভেন্দু। দল ছাড়ার পর থেকেই তাঁকে ক্রমাগত আক্রমণ করে যাচ্ছেন অভিষেক। পাল্টা শুভেন্দু অধিকারীও অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে আক্রমণের রাস্তায় হেঁটেছেন।একাধিক জনসভায় তিনি নিশানা করেছেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে। বিধানসভা নির্বাচনের আগে দলবদলসহ একাধিক ইস্যুতে সরগরম রাজ্যরাজনীতি।