আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনে যে জোটবদ্ধভাবে লড়বে বাম-কংগ্রেস সে কথা আগেই ঘোষণা হয়ে গিয়েছিল। আসন বন্টন নিয়ে গত শুক্রবার বৈঠকে বসেছিলেন অধীর চৌধুরী, সূর্যকান্ত মিশ্র ও বিমান বসু। রবিবার ফের আসন সমঝোতা নিয়ে বৈঠকে বসেছিল বাম-কংগ্রেস নেতৃত্ব। উপস্থিত ছিলেন অধীর চৌধুরী, আবদুল মান্না, বিমান বসু, সূর্যকান্ত মিশ্র ও বামফ্রন্ট শরীকরা। তবে এদিনও বৈঠক শেষে বিজেপি-তৃণমূলের বিরুদ্ধে কাধে কাধ মিলিয়ে বাম-কংগ্রেস লড়াই করার বার্তা দিলেও, অধরা রয়ে গেল আসন সমঝোতার সমাধান সূত্র।

প্রকাশ্যে দুই দলের নেতারা মুখ না খুললেও, জানা গিয়েছে, বৈঠকে দুই দলের নেতৃত্বের মধ্যে মতানৈক্য হয়। সূত্রের খবর, বৈঠকে ১৩০টি আসনে লড়াই করার দাবি জানিয়েছে প্রদেশ কংগ্রেস নেতৃত্ব। তবে কংগ্রেসের ১৩০ আসনের দাবি মানতে নারাজ বামফ্রন্ট। সরাসরি সংঘাতে না গেলেও, আসন ধরে ধরে আলোচনা করেই কোনও সিদ্ধান্তে যাওয়ার পক্ষপাতি বিমান বসু, সূর্যকান্ত মিশ্ররা। কারণ কংগ্রেস ১৩০ আসনে লড়লে সিপিএম ও তাদের শরীক দলের মধ্যেও তৈরি হবে সমস্যা। ফলে আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনের আগে অধরা বাম-কংগ্রেসের আসন সমঝোতা।

বৈঠকে অন্দরে যাই আলোচনা হোক, বাইরে সাংবাদিক বৈঠকে কিন্তু নিজেদের এক্য তুলে ধরার চেষ্টা করে দুই পক্ষই। প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর চৌধুরী জানান,'রাজ্যে তৃণমূল-বিজেপির বিরুদ্ধে যৌথভাবে লড়বে বাম-কংগ্রেস। তবে বিধানসভা ভোটের আসন সমঝোতা নিয়ে আজ একদফায় আলোচনা হয়েছে, আগামি দিনেও এই আসোচনা চলবে। এটা একটা প্রক্রিয়া। একদিনের মধ্যে সিদ্ধান্তে আসা সম্ভব নয়।' কার্যত একই সুর শোনা যায় বিমান বসুর গলাতেও। বামফ্রন্ট চেয়ারম্যান বলেন, তৃণমূল-বিজেপির বিরুদ্ধে একসঙ্গে কর্মসূচির ভিত্তিতে লড়বে দুই দল। আর আসন সমঝোতা নিয়ে আগামি দিনে বৈঠকে আলোচনার মাধ্যমে চূড়ান্ত সিদ্ধান্তে  পৌছানো হবে। ফলে রাজনৈতিক মহলের মতে, অন্যান্যবারের মতই আসন নিয়ে দর কাষাকষি চলছে দুই দলের। দৃএখন দেখার কোন ফর্মুলায় মেলে সমাধান সূত্র।