বিজেপি কর্মীদের উপর হামলার প্রতিবাদ। ঘটনায় পুলিশের বিরুদ্ধে নিষ্ক্রিয়তার অভিযোগ তুলে তমলুকে এপি অফিসের সামনে ধরনায় বসলেন বিজেপি নেতা শুভেন্দু অধিকারী। সেখান থেকে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্য়ায় সহ তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে একযোগে আক্রমণ করেন তিনি। রবিবার কুলতলিতে অভিষেকের তোলা নারদা কাণ্ডে ঘুষ নেওয়ার দাবি নস্যাৎ করে পাল্টা জবাব দিলেন শুভেন্দু। 

আরও পড়ুন-মাত্র ১৬ বছরেই বই লিখে অন্যন্য নজির, বাংলার সৌহার্দ্যকে শুভেচ্ছা জানালেন প্রধানমন্ত্রী

সোমবার তমলুকের সভা থেকে শুভেন্দু অধিকারী বলেন, ''নারদা কাণ্ডে টাকা ঢেলে ছিলেন তৃণমূল সাংসদ কেডি সিং। তাঁকে সাহায্য করেছিল তোলাবাজ ভাইপো। আমি পদত্যাগ করার পরই, জেলে থাকা সুদীপ্ত সেনকে দিয়ে চিঠি লিখিয়েছে জেলের দায়িত্ব প্রাপ্ত একজন আইপিএস মিস্টার পাণ্ডে। অভিষেকের নির্দেশে লেখানো হয়েছে এই চিঠি। সেখানে নাম লেখা হয়েছে বিমান বসুর। যাঁকে আমি শ্রদ্ধা করি। ফেব্রুয়ারি মাসে দক্ষিণ ২৪ পরগনায় মিটিং করে জবাব দেব। খুব বড়বড় কথা না''।

আরও পড়ুন-বাংলার ভোটে বিরোধী নেতাদের সুরক্ষা দাবি, জনস্বার্থ মামলায় আবেদন খারিজ সর্বোচ্চ আদালতের

পাশাপাশি, কয়লা ও গরু পাচার কাণ্ডে অভিযুক্ত লালা ও এনামূলকে নিয়ে অভিষেককে নিশানা করেবন শুভেন্দু। তিনি বলেন, ''লালার চুলি মুটি ধরেছে সিবিআই। তৃণমূল-এনামূল। বিনয় মিশ্র সম্পর্কে কে? তাঁর সম্পর্কে কেন বলছেন না তিনি''? এছাড়াও, পুলিশের বিরুদ্ধে একগুচ্ছ অভিযোগ তুলে সরব হন শুভেন্দু। বিজেপি কর্মীদের মিথ্যা মামলার ফাঁসানো হচ্ছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি। আগামী নির্বাচনে তৃণমূল নেত্রীর বাড়িতে পদ্মফুল ফোটানোর হুঁশিয়ারি দিয়েছেন শুভেন্দু।