মমতার মন্ত্রিসভায় এবার স্থান পেলেন জঙ্গলমহলের তিন মহিলা। পুরুলিয়া, বাঁকুড়া এবং ঝাড়গ্রাম এই তিন জেলার জঙ্গলমহলের বিস্তীর্ণ এলাকার উন্নয়নের দায়িত্ব এবার উঠতে চলেছে সন্ধ্যারানি টুডু, জোৎস্না মান্ডি এবং বীরবাহা হাঁসদার উপরেই।  বনমহলের তিন জেলা থেকেই কোনও পুরুষ নয়, এবার শুধু এই তিন মহিলারই মন্ত্রী হতে চলেছেন।


আরও দেখুন, Live Covid 19- বাংলায় একদিনে করোনা আক্রান্ত প্রায় ২০ হাজার, আজ শপথ গ্রহণ মমতার মন্ত্রিসভার 

 ২০১১ সালে বিধায়ক হওয়ার পর ২০১২ সালে তাকে পরিষদীয় সচিব করা হয়।২০১৬ সালে সন্ধ্যারানি টুডু অনগ্রসর শ্রেণিকল্যাণ বিভাগের রাষ্ট্রমন্ত্রী ছিলেন। বিধায়ক সন্ধ্যারানি টুডু বলেছেন, আমাদের নেত্রী মমতা বন্দ্য়োপাধ্যায় যে দায়িত্ব দিয়েছেন সেটার সম্পূর্ণ পালন করব। জঙ্গলমহলের আমাদের তিন মহিলাকে নবান্নে নিয়ে যাচ্ছেন। আমরা গর্বিত।' পাশাপাশি বাঁকুড়ার রাণিবাধ বিধানসভার হিড়বাঁধের জ্য়োৎস্না মান্ডি ২০১৬ সালে প্রথম রাজনীতিতে পা দিয়েছেন। জ্য়োৎস্না বলেছেন, মেয়েরা শুধু হেঁশেল সামলায় তা নয়। সব কাজ করতে পারে। দিদি আমদের উপর আস্থা রাখায় আমরা কৃতজ্ঞ। অপরদিকে ঝাড়গ্রামের বীরবাহা সাঁওতালি চলচ্চিত্রের জগতের নায়িকা। ভোটের আগে তাঁর বাবার প্রতিষ্ঠা করা দল ছেড়ে তৃণমূলে যোগদান করেন। চিরকালীন সমাজসেবার সঙ্গে যুক্ত বীরবাহা বলেছেন, আজও বিভিন্ন ক্ষেত্রে মহিলারা যথাযথ সম্মান পান না।  কিন্তু দিদি সবসময় মহিলারদের গুরুত্ব দেন। জঙ্গলমহল থেকে তিন মহিলাকে মন্ত্রী করায় আবার সেই কাজের প্রমাণ দিলেন নেত্রী।'

আরও পড়ুন, 'চিত্ত যেথা ভয় শূন্য', কবিগুরুর জন্মদিনে ভোট পরবর্তী হিংসার ইস্যুতে মমতাকে তোপ রাজ্যপালের 

উল্লেখ্য, সোমবার শপথ নিতে চলেছেন রাজ্যের নব নির্বাচিত বিধায়করা। রাজভবন জুড়ে প্রস্তুতি পর্ব তুঙ্গে। নতুন মন্ত্রীদের নামের তালিকা প্রকাশিত হয়েছে। মোট ৪৩ জন মন্ত্রী  রাজভবনে শপথ নেবেন ।সোমবার সকাল ১০.৪৫ মিনিটে শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠান শুরু হবে।