সঞ্জিব দুবে, নন্দীগ্রাম- তৃণমূল কংগ্রেস দেশবিরোধী পার্টি। পুরনো ভিডিও দেখলেই তার প্রমাণ পাওয়া যাবে। এবার পুরনো দলের বিরুদ্ধে এভাবেই আক্রমণ শানালেন নন্দীগ্রামের বিজেপি প্রার্থী শুভেন্দু অধিকারী। মহিষাদলে দলীয় প্রার্থী বিশ্বনাথ ব্যানার্জির সমর্থনে প্রচারে গিয়েছিলেন তিনি। ভাষণ শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সার্জিকাল স্ট্রাইকের পর তার প্রমাণ চেয়েছিলেন। এ থেকেই প্রমাণিত হয় এই দল দেশবরোধী। নিজের বক্তব্যের সমর্থনে শুভেন্দু আরও বলেন, কয়েকদিন আগে তৃণমূলের পক্ষ থেকে চার রাজধানীর যে দাবি করা হয়েছে, তা থেকে স্পষ্ট এরা সকলেই একই রকম।

আরও পড়ুন- টিকার ২ ডোজ নিয়েও করোনা আক্রান্ত স্বাস্থ্যকর্মী, ওদিকে রাজ্য়ে সংক্রমণ ছাড়াল ৫০০-র গন্ডী

স্বভাবসিদ্ধ রসিকতার ঢংয়ে শুভেন্দু বলেন, ঝাড়ে একরকমই বাঁশ হয়, হয় সরল, নয়ত কাঁটাওয়ালা। তৃণমূল কংগ্রেসের বিরুদ্ধে তিনি আরও বলেন, গত লোকসভা ভোটের সময়ে বাংলাদেশের এক নাগরিককে ভোটপ্রচারে শামিল করা হয়েছিল। বাংলাদেশের স্লোগান এখানে ব্যবহার করা হচ্ছে বলেও অভিযোগ করেছেন শুভেন্দু।

 

 মাত্র কয়েক মাস আগে তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন একদা মমতার চোখের নীলকান্ত মণি শুভেন্দু অধিকারী। তৃণমূলের ক্ষমতায় আসার পথ প্রশস্ত করেছিল যে নন্দীগ্রাম আন্দোলন, সেখানেই তাঁকে প্রার্থীপদ দিয়েছে বিজেপি। বিজেপির এই মাস্টারস্ট্রোকের জবাব দিতে মমতা স্বয়ং প্রার্থী হয়েছেন নন্দীগ্রাম থেকে। এর পরেই শুভেন্দু আক্রমণ জোরালো করেছেন তৃণমূলের বিরুদ্ধে। তিনি কড়া হিন্দুত্বের লাইন নিয়ে মমতাকে আক্রমণ করছেন, আর অন্যদিকে মমতা গোটা অধিকারী পরিবারকে বিশ্বাসঘাতক আখ্যা দিয়ে প্রচার করছেন।

সব মিলিয়ে রাজনৈতিক ভাবে চূড়ান্ত উত্তপ্ত হয়ে রয়েছে নন্দীগ্রাম তথা পূর্ব মেদিনীপুর। এরই মধ্যে কয়েকদিন আগে সরকারি ভাবেই বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন শুভেন্দু পিতা শিশির অধিকারী।