'আগে চাকরির হিসেব দিক বিজেপি, তারপর ভুয়ো প্রকল্প চালু করবে',  হরিদেবপুর কবরডাঙ্গার রক্তদান শিবিরে এসে 'আর নয় বেকারত্ব' কর্মসূচিকে কটাক্ষ করলেন রাজ্যের পুরমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম।  ৩৫৬ ধারা নিয়ে প্রতিক্রিয়া জানাতে গিয়ে উঠে আসল বাংলার '৩৪ বছর' প্রসঙ্গও। বিধানসভা ভোটের মুখে স্বাভাবিকভাবেই কোনঠাসা হয়ে পড়েছে তৃণমূল শিবির। এমন মন্তব্য করায়, 'মা-মাটি-মানুষের সরকারের' আতঙ্কের গন্ধ পাচ্ছে রাজ্যনৈতিক মহলও।

'আগে ৭ বছরে ১৪ কোটি চাকরির হিসেব দিক বিজেপি'


হরিদেবপুর কবর ডাঙ্গা ১৪২ নম্বর ওয়ার্ডের কোঅর্ডিনেটর রঘুনাথ পাত্র একটি রক্তদান শিবির আয়োজন করেছিলেন। সেখানে উপস্থিত ছিলেন মেয়র ফিরহাদ হাকিম, শুভাশিস চক্রবর্তী, মালা রায় ও শক্তি মন্ডল। এই অনুষ্ঠানে এসে ফিরহাদ হাকিম বিজেপির 'আর নয় বেকারত্ব' কর্মসূচি কে কটাক্ষ করে বললেন, 'মোদী সরকার যখন ক্ষমতায় এসেছিল তখন প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল। প্রতিবছর ২ কোটি চাকরির দেব। বিজেপি সরকার ৭ বছর হয়ে গেছে। আগে ৭ বছরে ১৪ কোটি চাকরির হিসেব দিক, তারপর এই সব ভুয়ো প্রকল্প চালু করবে। এসব দেখিয়ে মানুষ কে বোকা বানানো যাবে না।'
 

উঠে আসল '৩৪ বছর' প্রসঙ্গ, ৩৫৬ ধারা  নিয়ে কী বললেন ফিরহাদ

অপরদিকে, ৩৫৬ ধারা অর্থাৎ রাষ্ট্রপতি আইন নিয়ে তিনি বললেন, 'মুকুল রায় ও কংগ্রেসে করতো আমরাও করতাম। আমরা ৩৪ বছর ধরে বলছিলাম ৩৫৬ কিন্তু হয়নি। অতএব এখনও হবে না। এগুলো ছেলেদের গরম করা বক্তব্য। রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়কে নিয়ে বললেন,' রাজীব আমার ছোটো ভাই, মনে দুঃখ থাকতে পারে। সেটা বলারও সময় আছে। এখন যদি আমি দল বিরোধী কথা বলি তখনেই বিজেপির যারা ইভেন্ট মেনেজার রা পোস্টার ছাপিয়ে সব জায়গায় ছড়িয়ে দেবে। বিজেপি সোজাসুজি লড়তে পারে না। উন্নয়ন নিয়ে রাজনীতি কৰুক তাহলে বুঝবো। বাপের বেটা হলে  পিছনে না মেরে সামনাসামনি লড়াই করুক।' তৃণমূলের গর্জে ওঠায়,  ওদিকে আত্মবিশ্বাস বাড়ছে রাজ্য- বিজেপির, চাপান উতোর রাজ্য-রাজনীতিতে।