বছর ঘুরে আবার সন্তানদের নিয়ে বাপের বাড়ির পথে মা দুর্গা। অপেক্ষার আর মাত্র কিছুদিন। তাই তোড়জোড় এখন তুঙ্গে। ওলিতে গলিতে শুরু হয়ে গিয়েছে মায়ের আগমনীর প্রস্তুতি। সেই সঙ্গেই মাতৃ আরাধনার জন্য নতুন নতুন থিমে সেজে উঠছে ক্লাবগুলি। সেইমতই বর্ধমান জেলার বড়শুলের অন্নদাপল্লী সর্বজনীন দুর্গাপুজো ও সেজে উঠতে চলেছে আবারও এক নতুন থিমে। 

২৬ তম বর্ষে পদার্পণ করতে চলেছে অন্নদাপল্লী সর্বজনীন। এবছর তাদের নতুন থিম 'আমার দুর্গা'। মল্লিকা সেনগুপ্তের কবিতা 'কন্যা' শ্লোককে পাথেয় করেই তারা এই থিমকে ফুটিয়ে তুলতে চলেছে তাদের মন্ডপে। মূলত নারীর প্রগতিকেই গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে তাদের এই থিমে। তারা পাঁচটি ভাগে ভাগ করেছে তাদের মণ্ডপকে। সেই পাঁচটি ভাগে রয়েছে, বিশ্বায়নে আমার দুর্গা, গৃহিণী আমার দুর্গা, আমার দুর্গা প্রতিবাদী, সহ্য করে নিচ্ছে আমার দুর্গা, প্রতিটি নারীর মধ্যেই বিরাজমান দুর্গা। এই অসাধারন থিমকে মণ্ডপে ফুটিয়ে তুলতে তারা ব্যবহার করছে থার্মোকল, খড়, বাঁশ, কাঠ, কাপড়, সুতলি ও আরও অনেক কিছু। অর্থাৎ বোঝাই যাচ্ছে ঠিক কতটা অসাধারন হতে চলেছে তাদের থিম। তাদের এই থিমের সৃজনে থাকছেন ফাইন আর্টসের ছাত্র সিদ্ধার্থ পাল। ওনার চিন্তাভাবনার মাধ্যমেই ক্লাবে আসতে চলেছে এই থিম।  

২০১১ সাল থেকে থিমের পুজো  শুরু হয়েছিল তাদের ক্লাবে। তার পর থেকেই প্রতিবছর নতুন নতুন থিমে সেজে উঠেছে তাদের প্যান্ডেল। গত বছর দুর্গা পুজোতেও এমনই একটি অসাধারন চিন্তা ভাবনা নিজেদের থিমে প্রস্ফুটিত করেছিল অন্নদাপল্লী সর্বজনীন । গত বছর তাদের ক্লাবের থিম ছিল 'পাথরে প্রান প্রতিমা'। এই থিমটি অধিক জনপ্রিয়তা পেয়েছিল দর্শনার্থীদের কাছে। তাই এবছরেও তাদের থিম ঠিক কতটা মন কাড়বে দর্শনার্থীদের সেটাই দেখার অপেক্ষায় দিন গুনছে সকলে।