Asianet News BanglaAsianet News Bangla

Accident: 'জেলায় কাজ নেই', বিশাখাপত্তনম যাওয়ার পথে ভ্যান উল্টে বাংলার ৪ শ্রমিকের মৃত্য়ু, আহত ২৫

বিশাখাপত্তনম কাজ করতে যাওয়ার পথে পুরুলিয়া ঝাড়খণ্ডের  সীমান্তে পিকআপ ভ্যান উল্টে  চার পরিযায়ী শ্রমিকের মৃত্য়ু।  পুলিশ সূত্রের খবর, ঘটনায় ২৫ জন গুরুতর আহত হয়েছেন।

 

4 Migrant worker died seriously injured 25 in tragic road accident at Purulia and Jharkhand Border RTB
Author
Kolkata, First Published Nov 28, 2021, 11:05 AM IST
  • Facebook
  • Twitter
  • Whatsapp

বিশাখাপত্তনম কাজ করতে যাওয়ার পথে পুরুলিয়া ঝাড়খণ্ডের  সীমান্তে (Tragic road accident at Purulia and Jharkhand Border) পিকআপ ভ্যান উল্টে  চার পরিযায়ী শ্রমিকের মৃত্য়ু (4 Migrant worker died)। মৃত ৩ শ্রমিকের বাড়ি পুরুলিয়া এবং  ১ জন বাঁকুড়া জেলায়। নিজের এলাকায় কাজ নেই, পেটের জ্বালায় তাই ভিনরাজ্য়ে পাড়ি দিয়েছিল বাংলার ওই শ্রমিকরা। কিন্তু  শেষ অবধি ঘরেই ফেরা হল না। 

পরিযায়ী শ্রমিক সমস্যা এখনও প্রকট রাজ্যের পুরুলিয়া- বাঁকুড়া জেলায় বলে দাবি সাধারণ মানুষের। এবার ভিন রাজ্যে কাজের উদ্দেশ্যে যাওয়ার পথে পথ দুর্ঘটনায় কবলে পড়ে প্রাণ হারালেন চার জন পরিযায়ী শ্রমিক। জানা গিয়েছে, শনিবার পুরুলিয়ার বরাবাজার থানার সিন্দরী গ্রাম থেকে প্রায় ৩২জন শ্রমিক নিয়ে একটি পিকআপ ভ্যানে করে ঝাড়খণ্ডের টাটার উদ্দেশ্যে রওনা দেন। সেখান থেকে তাদের ট্রেন ধরে বিশাখাপত্তনমে যাওয়ার কথা ছিল। কিন্তু আর গন্তব্যস্থলে পৌঁছান হল না। পিকআপ ভ্যানটি ঝাড়খণ্ডের পটমদা-টাটা মেনরোড এর ধুসরা গ্রাম সংলগ্ন রাস্তার উপর দুর্ঘটনার কবলে পড়ে । এই ঘটনায় মোট চারজন ঘটনাস্থলেই মারা যান। ঘটনায় ২৫ জন গুরুতর আহত হন।

পুলিশ সূত্রের খবর, ওই দুর্ঘটনায় প্রাণ হারিয়েছেন বরাবাজার ব্লকের সিন্দরী গ্রাম পঞ্চায়েতের অন্তর্গত শিমুল ডাঙা গ্রামের বছর ৪৫-র নির্মল মাহাতো,বছর ২৫ এর দূর্যোধন মাহাতো ওরফে ফলারি  এবং লাকা গ্রামের বাসিন্দা বছর ৩৬-র কৃত্তিবাস মাহাতো। তাঁর বাড়ি বান্দোয়ান থানার বারুডি গ্রামে বলে জানা গিয়েছে।  তাঁদের সঙ্গে প্রাণ হারিয়েছেন খাতাডা থানার বনতিল্লা গ্রামের সঞ্জয় কর্মকার‌ও । বরাবাজার ব্লকের সিন্দরী এলাকার মোট ১১ জন কাজ করতে যাচ্ছিলেন বলে জানা গিয়েছে। মৃতদেহগুলি গ্রামে নিয়ে এলে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে । মৃত শ্রমিক পরিবারের আত্মীয়রা জানান, 'জেলায় কাজ নেই তাই কাজের খোঁজে ভিন রাজ্যের যেতে হচ্ছে। এলাকায় পর্যাপ্ত কাজ থাকলে আজকের এই ঘটনা দেখতে হত না।'

প্রসঙ্গত,  শহরের গতি নিয়ন্ত্রণের জন্য স্পিড মিটার বসানো হয়েছে। সেভ ড্রাইভ, সেফ লাইফ নিয়ে প্রচার করা হচ্ছে। তবুও হুশ ফেরেনি গাড়ি চালকদের। তবে এর আগেও ভিন রাজ্যে যাওয়ার পথে গাড়ি উল্টে ভোর রাতে প্রাণ হারায় বাংলার পরিযায়ী কর্মীরা। চলতি বছরে অগাস্ট মাসে এমনই একটা দুর্ঘটনা প্রকাশ্যে আসে। কাজের সূত্রে তামিলনাড়ু যাওয়ার পথে ভয়াবহ পথ দুর্ঘটনায় মৃত্যু হয় ৬ বাংলার শ্রমিকের। ঘটনাটি ঘটে দক্ষিণ ২৪ পরগনার বকুলতলা থানার সীমানা বাজার এলাকায়। 

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios