ফের পুলিশ কর্মী পরিচয় দিয়ে প্রতারণা। এবার উত্তর চব্বিশ পরগণার ব্যারাকপুর থেকে এক ব্য়ক্তিকে গ্রেফতার করল পুলিশ। চাকরি দেওয়ার নাম করে সে কয়েক হাজার টাকা হাতিয়ে নিয়েছে বলে অভিযোগ।

অভিযুক্তের নাম সুজিত নাথ। একসময়ে হুগলির ডানকুনি থানায় কনস্টেবল পদে কর্মরত ছিল সে। কিন্তু শৃঙ্খলাজনিত কারণে তাকে চাকরি থেকে সাসপেন্ড করা হয় বলে জানা গিয়েছে। কিন্তু তাতে কী! পুলিশকর্মীর পরিচয়কে কাজে লাগিয়ে চলছিল প্রতারণার কারবার। সেই ফাঁদে পা দিয়ে প্রতারিত হয়েছেন মমতা রায় নামে এক গৃহবধূ। দিন কয়েক আগে টিটাগড় থানায় এফআইআর করেন ওই গৃহবধূ। 

আরও পড়ুন: এম এ পাশ মেয়েটির প্রেমিক ছিল এইট পাশ পঞ্চানন, বাড়ির আপত্তিতে গলায় দড়ি দিল রিমা

আরও পড়ুন: ব্যবধান সাতদিনের, বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল থেকে ফের নিখোঁজ রোগী

ওই গৃহবধূর দাবি, সোশ্যাল মিডিয়া মারফৎ সুজিতের সঙ্গে পরিচয় হয় তাঁর। নিজেকে পুলিশকর্মী পরিচয় দিয়ে পরিবারের সকলের সঙ্গেই ভাব জমায় অভিযুক্ত। শুধু তাই নয়, মমতাকে সে কলকাতা পুলিশে চাকরি করে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেয় বলে অভিযোগ। মমতার রায়ের দাবি, চাকরি দেওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে তাঁর কাছ থেকে দফা দফায় কয়েক হাজার টাকা নিয়েছে সাসপেন্ডড ওই পুলিশকর্মী। কিন্তু চাকরি পাননি তিনি। এরপর সুজিতের কাছে টাকা ফেরত চান ওই গৃহবধূ। তখন নানা অজুহাত দেখাতে শুরু করে সে। সন্দেহ হওয়ায় শেষপর্যন্ত সুজিত নাথের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করা হয় টিটাগড় থানায়। বুধবার বারাকপুরের চার নম্বর রেলগেট এলাকায় থেকে অভিযুক্তকে গ্রেফতার করে পুলিশ। তার বিরুদ্ধে আর্থিক প্রতারণা-সহ একাধিক ধারায় মামলা রুজু করেছেন তদন্তকারীরা।