রাজ্যে কী ডেঙ্গু মহামারি আকার নেবে? একের পর এক মৃত্যুতে আশঙ্কা কিন্তু ক্রমেই জোরালো হচ্ছে।  উত্তর ২৪ পরগণার খড়দহে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে মারা গেলেন আরও একজন। আতঙ্কিত স্থানীয় বাসিন্দারা।

মৃতের নাম শুভব্রত সাহা। বাড়ি, খড়দহের শান্তিনগর এলাকায়। গত শনিবার জ্বরে আক্রান্ত হন তিনি। পরিবারের লোকেরা আর দেরি করেননি। রবিবার শুভব্রতকে ভর্তি করা হয় কামারহাটির একটি বেসরকারি হাসপাতালে। পরিবারের লোকেরা জানিয়েছেন, সেদিন রাতেই রক্ত পরীক্ষায় ডেঙ্গু ধরা পড়ে।  চিকিৎসায় সাড়া দিচ্ছিলেন শুভব্রত। ধীরে ধীরে সুস্থ হয়ে উঠছিলেন তিনি।   খাওয়া-দাওয়া, কথাবার্তা সবই স্বাভাবিক ছিল। কিন্তু  বৃহস্পতিবার ফের কাঁপুনি দিয়ে জ্বর আসে শুভব্রতের। তাঁর শারীরিক অবস্থায় দ্রুত অবনতি হতে থাকে। পরিবারের লোকেদের বক্তব্য, শারীরিক অবস্থার এতটাই, রোগীর মাথায় রক্তক্ষরণের আশঙ্কা করেছিলেন চিকিৎসকরা।  শেষপর্যন্ত বৃহস্পতিবার শুভব্রত সাহাকে কলকাতার একটি নার্সিংহোমে ভর্তি করেন পরিবারের লোকেরা। কিন্তু তখন অনেক দেরি হয়ে গিয়েছে।  শুক্রবার সকালে মারা যান ডেঙ্গুতে আক্রান্ত শুভব্রত সাহা।

এর আগে বৃহস্পতিবার ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে মারা যান বেহালার এক যুবতী।  গত ১২ নভেম্বর থেকে জ্বরের উপসর্গ নিয়ে আরজিকর হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন তিনি। পরিবারের লোকেদের দাবি, তাঁর রক্তের ডেঙ্গুর জীবাণু পাওয়া গিয়েছিল। ডেথ সার্টিফিকেটেও ডেঙ্গুর কথা উল্লেখ করেছেন চিকিৎসকরা।  

খাস কলকাতায় এখনও পর্যন্ত ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে মারা গিয়েছেন ৭ জন। হাসপাতালে ভর্তি বহু মানুষ। গত কয়েক দিনে আগে সংসদের শীতকালীন অধিবেশনেও রাজ্যের ডেঙ্গু পরিস্থিতি নিয়ে প্রশ্ন তোলেন বাঁকুড়া বিজেপি সাংসদ সুভাষ সরকার।