'দিদিকে বলো'র পর এবার হাত বাড়ালেই দাদা। সাংসদ এলাকার সমস্য়ার সমাধানে উদ্য়োগ নিলেন অর্জুন সিং। নতুন অ্য়াপের মাধ্য়মে সাংসদকে এলাকার সমস্য়া সম্পর্কে জানাতে পারবে ব্য়ারাকপুরবাসী।
পিছিয়ে থাকল না বিজেপি। তৃণমূলের জনসংযোগ কৌশলকে মাত দিতে ময়দানে নামলেন ব্য়ারাকপুরের সাংসদ। এবার থেকে অ্য়াপের মাধ্য়মে নিজেদের সমস্য়া সাংসদকে জানাতে পারবে এলাকাবাসী। বুধবার তারই আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করলেন অর্জুন সিং। ওয়েবসাইটের নাম দেওয়া হয়েছে www.arjunsinghmp.com এই উদ্য়োগর প্রচার পোস্টারেও তাক লাগিয়েছেন সাংসদ। যার ক্য়াচলাইন হাতের মুঠোয় এমপি। আপনাদের অভিযোগ,আমার সমাধান। ইতিমধ্য়েই ব্য়ারাকপুরের বিভিন্ন এলাকায় শোভা পাচ্ছে অর্জুনের এই পোস্টার।

আরও পড়ুন : গ্রামের দোকানে ঢুকে নিজের হাতে চা বানালেন মুখ্যমন্ত্রী, দেখুন ভিডিও
সাংসদ জানিয়েছেন,নিজে ব্য়স্ত থাকলেও এলাকাবাসীর সমস্য়া দেখা তাঁর মূল কাজ। সেকারণেই পুরোদস্তুর এই ওয়েবসাইট খুলেছেন তিনি। ওয়েবসাইট দেখভালের জন্য় রাখা হয়েছে দক্ষ লোক। তবে ওয়েবসাইটের প্রকাশের দিনও নিজের পুরোনো দলকে খোঁচা দিতে ছাড়েননি সাংসদ। অর্জুন বলেন,'বিগত ১০ বছর হাত বাড়ালে কেন বাড়িতে গেলেও এমপিকে পেত না ব্য়ারাকপুরবাসী। সেই জন্য় আমি ভাবলাম এমন কিছু করব যাতে হাত বাড়ালেই দাদাকে পাবে এলাকাবাসী।'

আরও পড়ুন : ইঞ্জিনিয়ারিং পড়ুয়ার কাছে বন্দুক- গুলি, দুর্গাপুরে হাতেনাতে গ্রেফতার, দেখুন ভিডিও
তবে এই বলেই থেমে থাকেননি ব্য়ারাকপুরের নব নির্বাচিত সাংসদ। অর্জুনের দাবি,মমতা ব্য়ানির্জির পাশে মানুষ আর নেই। নিজেও সেই বিষয়টা ভালোভাবেই বুঝেছেন মুখ্য়মন্ত্রী। সেকারণে প্রশান্ত কিশোরের মতো লোককে দিয়ে টাকা খরচ করে দিদিকে বলো করেছেন। কিন্তু দিদিকে বলতে বলতে মানুষ হয়রান হয়ে গেছেন। সিমেন্ট, বালি সবেতেই কাটমানি দিতে হচ্ছে। এখন দিদিকে বললে এই কাটমানির পরিমাণটা আরও বেড়ে যাবে। তাই দিদিকে বলে আর কোনও লাভ নেই।