মমতা বন্দোপাধ্যায় পাকিস্তানের প্রতি সহানুভুতিশীল। পাকিস্তানের এক প্রথম সারির টিভি চ্যানেলে বসে এরকমই বিবৃতি দিলেন দুঁদে পাকিস্তানি রাজনীতিবিদ তথা সাংবাদিক মুশাহিদ হুসেন। তবে শুধু তৃণমূল নেত্রীই নন, পাক-সমব্যথী হিসেবে ভারতের বেশ কয়েকজন পরিচিত ব্যাক্তিত্ব ও রাজনৈতিক দলের নাম নিয়েছেন তিনি।

সম্প্রতি এই অনুষ্ঠানের ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে। সেখানে মুশাহিদ বলেছেন, গোটা ভারত মোদীর সঙ্গে নেই। লেখিকা অরুন্ধতি রায়, পশ্চিনবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দোপাধ্যায়, এবং ভারতের জাতীয় কংগ্রেস, কমিউনিস্ট পার্টি, দলিত দলগুলি পাকিস্তানের প্রতি সমব্যথী।  

তাঁকে প্রশ্ন করা হয়েছিল কীভাবে কাশ্মীর স্বাধীন হবে? তিনি বলেন কাশ্মীর সমস্যা নিয়ে পাকিস্তানের গুরুত্ব সহকারে এবং ধীরে ধীরে এগোন উচিত। এটা লম্বা যুদ্ধ। ভারত অনেক বড় দেশ এবং ভারতের অনেকেই পাকিস্তানের প্রতি সহানুভূতিশীল। এরপরই তিনি মমতা-সহ বাকিদের নাম করেন।

অন্যদিকে পাকিস্তান সরকার তাদের বিবৃতি মতোই বুধবার তাদের স্বাধীনতা দিবসের দিন 'কাশ্মীরের প্রতি সহমর্মিতা দিবস' হিসেবে পালন করেছে। তাদের প্রধানমন্ত্রী ও রাষ্ট্রপতির ভাষণের সিংহভাগ জুড়েই ছিল কাশ্মীরের কথা এবং ভারতের ৩৭০ ধারা বাতিলের সমালোচনা। বৃহস্পতিবার ভারতের স্বাধীনতা দিবসের দিনটা তারা সরকারিভাবে 'কালো দিবস' হিসেবে পালন করবে।