বালুরঘাটের জীবনরেখা আত্রেয়ী নদী। এই নদীর বুকে রয়েছে নানান অজানা ইতিহাস। জানা-অজানার গল্প। নিজের গতিপথ তৈরি করে আজও বয়ে চলছে নিরন্তর। মহাভারত, দেবীপূরাণ, রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ছিন্ন পদাবলীতে এই নদী। দক্ষিণ দিনাজপুরের আবেগ এই আত্রেয়ী নদী। ভারত-বাংলাদেশের অভ্য়ন্তরে এর গতিপথ সুরক্ষা সচেতনতায় অভিনব রিভার সাফারির উদ্যোগ নিল ইনোভেটিভ গ্রিনস আইডিয়াজ এন্ড লাইনস। সহযোগিতায় পতিরাম নাগরিক ও যুব সমাজ।

আরও পড়ুন-ভোটের আগে বাংলায় প্রধানমন্ত্রীর সফর, ফ্রেব্রুয়ারিতে রাজ্যে আসতে পারেন নরেন্দ্র মোদী

এখন কেমন অবস্থায় রয়েছে আত্রেয়ী। তার হাল হকিকত সরজমিনে খতিয়ে দেখতে রিভার সাফারির আয়োজন করা হয়েছে। সীমান্ত থেকে সীমান্ত যাত্রাপথে কোথায় কি ক্ষতি হয়েছে? নদী ভাঙন, নদীর চর, নদীর বাঁকবদল, নদী দূষণ, নদীতে জলের পরিমাণ পর্যবেক্ষণ, গভীরতা হ্রাসের পরিস্থিতি- সবই সরেজমিনে দেখা হবে এই রিভার সাফারির মাধ্য়মে। মঙ্গলবার থেকে শুরু হয়েছে এই নদী সাফারি। চলবে তিন দিন। জানালেন উদ্যোক্তারা।

আরও পড়ুন-দলের বিরুদ্ধে 'বেসুরো' রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়, এবার নিজেই কেন্দ্রেই 'বহিরাগত' পোস্টার

অভিনব এই নদী সাফারিতে অংশ নিয়েছেন তুহিনশুভ্র মণ্ডল,তুষারকান্তি দত্ত, প্রীতম সরকার, নীলোৎপল সরকার, বিশ্বজিত প্রামাণিক,মকশেদ আহমেদ, জুলিয়াস হাসান চৌধুরী সহ অন্য়ান্যরা। রিভার সাফারির মধ্যে দুপুরের খাওয়া দাওয়া চলবে। তিন দিনের এই সফরে প্রথম রাত্রিযাপন গোপালগঞ্জে। দ্বিতীয় রাত কাটবে পতিরাম এবং শেষরাতে বালুরঘাট হয়ে সম্পন্ন হবে আত্রেয়ীর রিভার সাফারি। ইনোভেটিভ গ্রিন আইডিয়াজ অ‍্যান্ড লাইনস- এর পক্ষে কো-অর্ডিনেটর পরিবেশকর্মী তুহিনশুভ্র মন্ডল জানান, ''আমাদের টিমের প্রত‍্যেক সদস‍্যের আলাদা-আলাদা দায়িত্ব আছে। আত্রেয়ী নদীতে এই ধরণের রিভার সাফারির আয়োজন সম্ভবত এই প্রথম। আমাদের সফরের গোটা ডকুমেন্টেশন করব আমরা। পরবর্তীতে জেলা প্রশাসন, রাজ‍্য ও কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে জমা দেওয়ার ভাবনা রয়েছে''।