বারাসত আদালতে আগাম জামিনের আবেদন করেও ধাক্কা খেতে হল কলকাতার প্রাক্তন নগরপাল রাজীব কুমারকে। ত্রুটিপূর্ণ আবেদনের যুক্তি দিয়ে রাজীবের আবেদন খারিজ করে দিল বারাসত আদালত। এমন কী, রাজীবের আবেদন ঘিরে এ দিন আদালত কক্ষের ভিতরে বিক্ষোভও দেখান আইনজীবীদের একাংশ। 

সুপ্রিম কোর্ট রাজীব কুমারকে সাতদিনের যে রক্ষাকবচ দিয়েছিল, তা আজই শেষ হচ্ছে। এ দিকে রাজ্যে আইনজীবীদের কর্মবিরতি চলায় সুপ্রিম কোর্টেই আগাম জামিনের আবেদন করেছিলেন রাজীব কুমার। কিন্তু রাজীব কুমারের আবেদন খারিজ করে দিয়ে সুপ্রিম কোর্ট জানিয়ে দেয়, প্রথম নির্দেশ অনুযায়ী রাজ্যের কোনও নিম্ন আদালতেই জামিনের আবেদন করতে হবে রাজীবকে। 

এর পরে এ বিকেল চারটে নাগাদ বারাসত জেলা জজের এজলাসে আগাম জামিনের আবেদন জমা করেন রাজীব কুমারের আইনজীবীী। তা শুনেই সেখানে জড়ো হয়ে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন অন্যান্য আইনজীবীরা। তাঁদের অভিযোগ, সকাল সাড়ে দশটার পরে জেলা জজের এজলাসে কোনও আবেদন জমা দেওয়া যায় না। নিয়ম ভেঙে কীভাবে আদালতে রাজীব কুমারের আইনজীবী নির্দিষ্ট সময়ের পরে আবেদন জমা করলেন? পরে অবশ্য জেলা জজের এজলাস থেকে জানিয়ে দেওয়া হয়, সময় পেরিয়ে যাওয়ার পরে আবেদন করায় রাজীব কুমারের আবেদন খারিজ করা হয়েছে। 

এর ফলে রাজীব কুমারেক ভবিষ্যৎ নিয়ে ফের প্রশ্নচিহ্ন দেখা দিল। কারণ সুপ্রিম কোর্টের দেওয়া সময়সীমা শেষ হয়ে যাচ্ছে আজই। সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ অনুযায়ী এর পরে রাজীবের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নিতে পারে সিবিআই। যার অর্থ তাঁকে গ্রেফতার করে হেফাজতেও নিতে পারেন সিবিআই গোয়েন্দারা। সম্ভবত শনিবার সকালেই অনেকটা স্পষ্ট হয়ে যাবে রাজীবের বিরুদ্ধে কী পদক্ষেপ নিতে চলেছে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা।