দলের শৃঙ্খলা ভেঙে নেতা কর্মীদের ওপরে হামলা করেছিল দলেরই একাংশ ৷ কর্মীদের মারধর করে দলীয় কার্যালয় পর্যন্ত ভেঙে দিয়েছিল তারা ৷  দলবিরুদ্ধ কাজের জন্য অভিযুক্ত এই ২৩ কর্মীকে দল থেকে বের করে দিল রাজ্য বিজেপি ৷ এমনকী তাদের সঙ্গে দলের কেউ যোগাযোগ রাখলেও তাদের বিরুদ্ধে দল ব্যবস্থা নেবে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন নেতারা ৷ রাজ্য নেতৃত্ব পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত এই নির্দেশ বহাল থাকবে। গত ২৯ নভেম্বর ডেবরায় জেলা অফিসে ভাঙচুর চালানোর ঘটনায় এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। 
 
জানা গিয়েছে, বহিষ্কৃতদের মধ্যে সবংয়ের পঞ্চায়েত সদস্য শঙ্কর ঘড়াই, মহিলা মোর্চার জেলা সভাপতি শোভা সাঁতরাও আছেন। এছাড়াও বহিষ্কৃতদের মধ্যে ডেবরার ১৪, পিংলার ৭ ও সবংয়ের ২ জন আছেন। বিজেপির ঘাটাল সাংগঠনিক জেলার জেলা সভাপতি অন্তরা ভট্টচার্য বলেন, সেদিন যাঁরা এই ঘটনার সঙ্গে যুক্ত ছিলেন, তাঁদের সবাইকেই বহিষ্কার করা হয়েছে। শুধু বহিষ্কারই নয়, এঁদের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগও দায়ের করা হয়েছে। রাজ্য নেতা সায়ন্তন বসুর উপস্থিতিতে রবিবার ওই নেতা-কর্মীদের বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। এ ব্যাপারে রাজ্য সভাপতির অনুমতিও নেওয়া হয়েছে।   
 
ঘটনার দিনে বিজেপির জেলা সভাপতি অন্তরা ভট্টচার্যের গাড়িতেও হামলা করা হয়েছিল ৷ অভিযোগ,গাড়ি ভেঙে আক্রমণের চেষ্টা হয়েছিল অন্তরার ওপরেও ৷ যা হারের পরদিনই চরম অস্বস্তিকর পরিস্থিতি ছিল দলের কাছে ৷ আক্রমণকারীদের অভিযোগ, আমরা পুরনো বিজেপি কর্মী৷ কিন্তু আমাদের কথাকে গুরুত্ব না দিয়ে নিজেদের মতো করে দলে চালিয়ে দলটাকে ভরাডুবি করেছে একদল নেতা ৷ তাই তাদের সরাতে চাই আমরা।