কৃষি বিলের সমর্থন সভায় মুর্শিদাবাদের রবিবারে ঝটিকা সফরে গিয়েছিলেন লকেট চট্টোপাধ্যায়। মুর্শিদাবাদের নাকুড় তলা এলাকায় একটি দলীয় সভায় যোগ দেন বিজেপি সাংসদ লকেট চট্টোপাধ্যায়। মূলত কৃষি বিলের সমর্থনে সংখ্যা লঘু সমাজে বার্তা দিতে গিয়েছিলেন তিনি। এদিনে সভা করতে এসে কালো পতাকা দেখনো হল লকেট চট্টোপাধ্যায়-কে। সূত্রের খবর অনুযায়ী, সভা শেষে বহরমপুরে দলের অপর একটি মিছিলে যোগ দিতে যাওয়ার পথে লালবাগ শহরের সিংঘী হাই স্কুলের সামনে তাঁকে তৃণমূল যুব সংগঠনের পক্ষ থেকে কালো পতাকা দেখান হয়।

এখানেই শেষ হয়, বিজেপি নেত্রীর গাড়ি লক্ষ করে 'গো ব্যাক' স্লোগান দেন তৃণমূলের যুব নেতা-কর্মীরা। এর পাল্টা জবাবে জেলার সদর শহর বহরমপুরে সাংবাদিক বৈঠক করেন তিনি। এই সাংবাদিক বৈঠকে উত্তর প্রদেশ ধর্ষণকাণ্ডে তৃণমূল সাংসদ ডেরেক ওব্রায়নের উত্তর প্রদেশ যাওয়ার ঘটনাকে 'নাটুকে' বলে কটাক্ষ করেন তিনি। রাজ্যের পাশাপাশি জেলা জুড়ে কেন্দ্রের বিজেপি সরকারের আনা কৃষি বিল বাতিলের দাবিতে তৃণমূলের জোরদার আন্দোলন গড়ে তোলার উত্তর দিতেই এই ঝটিকা সফরে মুর্শিদাবাদ জেলায় আসেন বিজেপি সাংসদ  লকেট।

প্রসঙ্গত, আন্দোলন যাতে সাধারন মানুষ এবং কৃষিজীবীদের মধ্যে ব্যাপক আকারে ছড়িয়ে না পড়ে সে কথা মাথায় রেখে মুসলিম অধ্যসিত মুর্শিদাবাদ জেলাতেও পথে নেমেছে বিজেপি। সেখানে তিনি দলীয় নেতা কর্মীদের নির্দেশ দিয়েছেন, প্রতিটি বাড়ি বাড়ি গিয়ে মানুষ কে বোঝাতে কৃষি বিল কাদের স্বার্থে আনা হচ্ছে । এতে প্রকৃত পক্ষে কৃষিজীবী স্বাধীনতা লাভ করবে এবং কৃষক তার উৎপাদিত ফসল নিজের ইচ্ছে মত নায্য মুল্যে বক্রি করতে পারবেন। অন্যদিকে হাথরস ঘটনা নিয়ে সাংবাদিকদের বৈঠকে তিনি বলেন , “যোগী সরকারের প্রতি আমার পূর্ণ আস্থা আছে।  নির্যাতিতার পরিবার যেমন বিচার পাবেন, তেমনি আপরাধিরা কোনও ভাবেই ছাড়া পাবেন না ।”