তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন তিনি। সিএএ ইস্যুতে এ রাজ্যের বুদ্ধিজীবীদের আক্রমণ করতে গিয়ে এবার শালীনতার মাত্রা ছাড়ালেন বাঁকুড়ার বিষ্ণুপুরের সাংসদ সৌমিত্র খাঁ। পাল্টা ভিডিও পোস্ট করলেন সোশ্যাল মিডিয়ায়।

নাগরিকত্ব আইন নিয়ে সোচ্চার বাংলার বুদ্ধিজীবীরা। সম্প্রতি একটি ভিডিও-তে শোনা গিয়েছে তাঁদের প্রতিবাদী কণ্ঠ। সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়, সব্যসাচী চক্রবর্তী, রূপ ইসলামরা সমস্বরে আওয়াজ তুলেছেন, 'কাগজ আমরা দেখাব না।' ভিডিওটি ঝড়ের গতিতে ছড়িয়ে পড়ছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। সেটি রীতিমতো ভাইরাল হয়ে গিয়েছে। বুধবার বুদ্ধিজীবীদের বেনজির ভাষায় আক্রমণ করেন বিজেপি-র রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। তাঁর কথায়, 'বাংলার বিশিষ্টজনেরা ননসেন্স, নেমহারাম।  ওদেরকে জিজ্ঞাসা করতে চাই যে, আপনারা যখন এয়ারপোর্ট ঢুকবেন, পরিচয়পত্র আপনাদের ঢুকতে দেবে তো? এই ননসেন্সরা জানেই না যে রেশনের দোকান থেকে ট্রেন-বিমান সবজায়গায় বিনা পরিচয়পত্র ছাড়া নামিয়ে দেবে আপনাদের। সিনেমার টিকিট না কেটে কি পিছনের দরজা দিয়ে ঢোকেন? লোককে বোকা বানানো হচ্ছে যে কাগজ নেই! এঁরা নেমকহারাম। এদের ডায়লগবাজি মানুষদের বিভ্রান্ত করে।” বস্তুত, 'কাগজ আমরা দেখব না' শীর্ষক ভিডিও নিয়ে বুদ্ধিজীবী কটাক্ষ করেছেন আসানসোল-এর বিজেপি সাংসদ  ও কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়ও।  এবার সেই তালিকায় নাম লেখালেন বাঁকুড়ার বিষ্ণুপুরের সাংসদ সৌমিত্র খাঁ। বলা ভালো, আক্রমণের কদর্যতায় সকলকেই ছাপিয়ে গেলেন তিনি।

নিজের ফেসবুকে পেজে একটি ভিডিও পোস্ট করে বাংলার বিশিষ্টজনদের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন সৌমিত্র খাঁ। বুদ্ধজীবীদের তাঁর কটাক্ষ, 'লাজলজ্জহীনদের মতো কথা বলছেন! আপনারা ধান্দাবাজ। নিজেদের স্বার্থে টাকার দরকার হলে তো ছুটে ছুটে যাবেন। গ্রামের গরিব মানুষদের আধার, কেওয়াইসিতে সমস্যা হয়নি। এমনকী, নোটবাতিলেও সমস্যা হয়নি। সমস্যাটা আসলে আপনাদের!' এখানেই শেষ নয়। ভিডিও-তে রীতিমতো নাম করে সব্যসাচী চক্রবর্তী, রূপম ইসলাম ও স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায় নিশানা করেছেন বিজেপি সাংসদ। 

 

উল্লেখ্য, ২০১৪ সালে লোকসভা ভোটে তৃণমূল কংগ্রেসের টিকিটে বাঁকুড়ার বিষ্ণুপুর থেকে প্রথমবার সাংসদ নির্বাচিত হন সৌমিত্র খাঁ। কিন্তু পরবর্তীকালে নানা বিষয়ে দলের সঙ্গে দূরত্ব বাড়ে তাঁর। শেষপর্যন্ত গত লোকসভা ভোটের আগে দিল্লিতে গিয়ে বিজেপিতে যোগ দেন সৌমিত্র। গেরুয়াশিবিরের প্রার্থী হিসেবে ফের জেতেন বিষ্ণুপুর থেকেই। কিন্তু ঘটনা হল, ইদানিং নানা বিষয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করে বিজেপি-কেই বিড়ম্বনায় ফেলছেন সৌমিত্র। সূত্রের খবর, তৃণমূল থেকে আগত এই নেতাকে ঘিরে অসন্তোষ বাড়ছে গেরুয়াশিবিরে। অনেকে বলছেন, দল পাল্টালেও পুরানো অভ্যাস এখনও ছাড়তে পারেননি সৌমিত্র খাঁ।