জমির অনুমতি না মেলায় বারুইপুরে অমিত শাহের সভা শেষ মুহূর্তে বাতিল করে দিতে হল বিজেপি-কে। তবে বারুইপুরের সভা বাতিল করতে হলেও দক্ষিণ চব্বিশ পরগনার ক্যানিংয়ে সভা করলেন অমিত শাহ। আর সেই সভা থেকেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে রাজনৈতিক চক্রান্তের অভিযোগ তুললেন বিজেপি সভাপতি। তাঁর অভিযোগ, বারুইপুর যেহেতু অভিষেকের কেন্দ্র ডায়মন্ড হারবার লোকসভার অন্তর্গত, তাই তাঁর হারের ভয়েই সেখানে ইচ্ছাকৃতভাবে সভা বাতিল করিয়েছেন মমতা নিজে। একই সঙ্গে তাঁকে গ্রেফতার করার জন্য মমতাকে চ্যালেঞ্জও ছুড়ে দিলেন অমিত শাহ। এক নজরে দেখে নিন কী কী বললেন বিজেপি সভাপতি- 

১. মমতাদিদি আমি জয়নগরের মঞ্চ থেকে জয় শ্রীরাম ধ্বনি দিয়ে কলকাতা যাচ্ছি, ক্ষমতা থাকলে আমাকে গ্রেফতার করে দেখান। 

২. বারুইপুরে মমতাদিদির ভাইপোর কেন্দ্রে সভা ছিল। ভয় পেয়ে সেই অনুমতি বাতিল করে দিয়েছেন মমতা দিদি। কারণ তিনি জানেন, বিজেপি কর্মীরা একজোট হলে ভাইপোর আসনের ফল উল্টে যাবে।

৩. মমতা দিদি, আপনি সভা করতে দিন বা না দিন, কথা বলতে দিন না দিন, বাংলার মানুষ ঠিক করে নিয়েছে এবার লোকসভায় বাংলা থেকে নরেন্দ্র মোদীকে তেইশটির বেশি আসন তাঁরা উপহার দেবেন।

৪. নরেন্দ্র মোদী সরকারের চালু করা সরকারি প্রকল্রের সুবিধে বাংলায় পৌঁছয় না। সেই সব সুবিধে পেতে গেলে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরকারকে উপড়ে ফেলে দিন।

৫. আপনারা কি সিন্ডিকেট রাজকে সমর্থন করেন? ইট, বালি, সিমেন্ট সব কিছুর জন্য ট্যাক্স দিতে হয়। গত এক বছর ধরে সেই ট্যাক্স দিতে হচ্ছে ভাইপোকে। 

৬. মমতাদিদির শুধু অনুপ্রবেশকারীদের ভোট চাই, আর কিছু চাই না। 

৭. মমতাদিদির রাজত্বে দুর্গাপুজোর অনুমতি পাওয়া যায় না, সরস্বতী পুজো করলে মমতাদিদির গুন্ডারা এসে ঝামেলা করে, জয় শ্রীরাম বলা যায় না।

৮. শেষ দফায় মমতাদিদির বিরুদ্ধে ভোট দিন, আমি কথা দিচ্ছি আবার বাংলায় আগের মতোই দুর্গাপুজো হবে। 

৯. বাংলার সংস্কৃতি পুনরায় প্রতিষ্ঠিত করতে হলে বিজেপি-র সরকার গড়তে হবে।

১০. নরেন্দ্র মোদী সরকার গঠন হলে বাংলা থেকে খুঁজে খুঁজে অনুপ্রবেশকারীদের বের করা হবে। অনুপ্রবেশকারীরা বাংলার ভাল চায় না।

১১ . অনুপ্রবেশকারীদের কথা বললেই মমতা শরণার্থীদের ভয় দেখান। কিন্তু আমরা শরণার্থীদের নাগরিকত্ব দেওয়ার আশ্বাস দিচ্ছি।

১২. মমতাদিদি, আপনি সন্ত্রাসবাদীদের সঙ্গে কথা বললে বলুন। কিন্তু পাকিস্তান থেকে গুলি এলে তার পাল্টা জবাব দেবে ভারত।

১৩. সোনার বাংলাকে কাঙাল বাংলায় পরিণত করেছে মমতা সরকার। সোনার বাংলা গড়তে হলে বাংলা থেকে নরেন্দ্র মোদীকে তেইশটির বেশি আসন দিতে হবে।

১৪. ভয় পাবেন না, সব বুথে কেন্দ্রীয় বাহিনী থাকবে, মমতাদিদির পুলিশ আর গুন্ডারা কিছু করতে পারবে না।

 

এ দিন ক্যানিং ছাড়াও রাজারহাটে সভা করবেন অমিত শাহ। মঙ্গলবার কলকাতায় ধর্মতলা থেকে সিমলা স্ট্রিটে স্বামী বিবেকানন্দের বাড়ি পর্যন্ত রোড শো করবেন বিজেপি সভাপতি।