ভোটের পর থেকেই উত্তপ্ত হয়ে রয়েছে গোটা রাজ্য। জেলায় জেলায় চলছে এলাকা দখলের প্রস্তুতি। আর তার জন্য প্রচুর পরিমাণে বেআইনি অস্ত্র এবং বোমাও মজুত করে রাখা হচ্ছে বলে অভিযোগ। এবার হাতেনাতে তার প্রমাণ পাওয়া গেল মুর্শিদাবাদের বেলডাঙায়। গ্রামের মধ্যে মাটির নীচ থেকে উদ্ধার হল বিপুল পরিমাণ বোমা।

বাংলাদেশ সীমান্ত লাগোয়া মুর্শিদাবাদের বেলডাঙ্গা থানার দোলুয়াতে এ দিন এই বোমাগুলি উদ্ধার হয়। কয়েক দফায় পুলিশি তল্লাশিতে সোমবার তিন ড্রাম ভর্তি তাজা বোমা উদ্ধার করা হয়। ঘটনায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়ায়। সূত্রের খবর, গ্রামের ভিতরে পুকুর পাড়ে একটি বাথরুমের পাশে বোমার ড্রামগুলি মাটির তলায় পোঁতা ছিল।  

পুলিশি হানায়  মাটি খুঁড়ে ওই তিনটি ড্রাম থেকে মোট ১২০ টি তাজা বোমা উদ্ধার করা হয়। খবর দেওয়া স্পেশাল বম্ব স্কোয়াডকে। তারা এসে ওই বোমা  নিয়ে গিয়ে পাশের ঝুনকা এলাকার খোলা মাঠে সেগুলি ফাটিয়ে নিস্ক্রিয় করে। এই বিষয়ে বেলডাঙা থানার ওসি জামালউদ্দিন মণ্ডল বলেন, "কে বা কারা ওই বিপুল পরিমাণ বোমা এলাকায় মজুত করেছিল, তা জানতে তদন্ত শুরু হয়েছে।"

গত শনিবার বসিরহাটের সন্দেশখালিতেও গুলি, বোমার লড়াইতে প্রাণ হারিয়েছেন অন্তত চারজন। এলাকায় অত বোমা এবং অস্ত্র কোথা থেকে এল, তা নিয়েই প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। বেলডাঙাতে উদ্ধার হওয়া এই বিপুল সংখ্যক বোমা মজুত করার পিছনে কোনও রাজনৈতিক উদ্দেশ্য ছিল কি না, তাও খতিয়ে দেখছে পুলিশ। যদিও এই ঘটনায় এখনও কাউকে গ্রেফতার করা হয়নি।